এসবিএসি ব্যাংক

করোনা সংকটের মধ্যেও কর্মীদের বেতন না কমানোর ঘোষণা

সময়: বুধবার, জুন ১৭, ২০২০ ১০:১৮:০২ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা সংকটের মধ্যেও কর্মীদের বেতন-ভাতা না কমানোর ঘোষণা দিয়েছে বেসরকারি সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংক লিমিটেড। ইতিমধ্যেই অভ্যন্তরীণ চিঠি জারি করেছে চতুর্থ প্রজন্মের এ ব্যাংকটি।

এ বিষয়ে ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) তারিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, করোনা সংকটকালীন এ সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ব্যাংকাররা গ্রাহক সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এমন সময়ে বেতন কমানো অনৈতিক। তাই সাউথ বাংলা ব্যাংক তাদের পর্ষদ সভায় এই আপদকালীন সময়ে ব্যাংকারদের বেতন না কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তিনি বলেন, করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে যে আর্থিক ক্ষতি হয়েছে তা মোকাবিলায় সাউথ বাংলা ব্যাংক প্রস্তুতি নিচ্ছে। এছাড়া সরকার শিল্প কৃষি ও সেবা খাতে বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে তা বাস্তবায়নে কাজ করছে বলে জানান তিনি।

জানা গেছে, করোনাকালে ব্যয় কমানোর নামে ইতিমধ্যে তিনটি ব্যাংক তাদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা কমিয়েছে। বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তাদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (বিএবি) পরামর্শে কর্মকর্তাদের বেতন কমাতে শুরু করেছে ব্যাংকগুলো।

বিএবি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদারের এক্সিম ব্যাংকের পাশাপাশি সিটি ব্যাংক ও এবি ব্যাংকেই ইতিমধ্যে বেতন কমিয়েছে। আরও কয়েকটি ব্যাংক বেতন কমানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে বলে জানা গেছে।

সিটি ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ১৬ শতাংশ বেতন-ভাতা কমিয়েছে। বেতন কমানোর এ সিদ্ধান্ত চলতি মাসের ১ জুন থেকেই কার্যকর হবে। বহাল থাকবে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এক্সিম ব্যাংক বেতন কমিয়েছে ১৫ শতাংশ। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ ব্যাংকেও ১ জুন থেকেই কার্যকর হয়েছে।বহাল থাকবে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।
এবি ব্যাংক মে ও জুন মাসের বেতন ৫ শতাংশ কমিয়েছে। আগামী মাসগুলোতে বেতন কমবে কি না, সে বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

জানা গেছে, গত ১৫ জুন কর্মীদের বেতন-ভাতা ১৫ শতাংশ কর্তনের ঘোষণা দিয়েছে এক্সিম ব্যাংক। পাশাপাশি কর্মীদের পদোন্নতি ও ইনক্রিমেন্ট বন্ধেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাংকটি। চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে। এছাড়া একই রকম সিদ্ধান্ত নিয়েছে দ্য সিটি ব্যাংকও।

এর আগে, ব্যাংককর্মীদের বেতন-ভাতা ১৫ শতাংশ কমানো, পদোন্নতি, ইনক্রিমেন্ট, ইনসেন্টিভ বোনাস বন্ধসহ ১৩ দফা সুপারিশ করে দেশের সব বেসরকারি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও চেয়ারম্যানের কাছে চিঠি দেয় বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিএবি। কিন্তু এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ব্যাংক কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন মহলে চলছে সমালোচনার ঝড়। এমন পরিস্থিতিতে বেতন-ভাতা কমানোর সুপারিশ থেকে সরে এসেছে বিএবি। কিন্ত সুপারিশগুলো ঠিকই বাস্তবায়ন করছে। এতে ব্যাংকে ব্যাংকে কর্মকর্তাদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে অসন্তোষ।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Tagged