bangladesh bank

খেলাপি গ্রাহকরা একাধিক সুবিধা পেলেও ‘ভালো’ ঋণ গ্রহীতাদের সঙ্গে বিরূপ আচোরণ

সময়: বৃহস্পতিবার, জুন ১৮, ২০২০ ৯:৩৪:০৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : খেলাপি গ্রাহকরা একাধিক সুবিধা পেলেও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিরূপ আচরণের শিকার ‘ভালো’ ঋণ গ্রহীতারা। এবার ভালো ঋণ গ্রহীতার সুদে ছাড় দিচ্ছে না বাংলাদেশ ব্যাংক। এতোদিন ‘ভালো’ ঋণগ্রহীতাদের কাছ থেকে তাদের ঋণের বিপরীতে যে সুদ ধার্য হতো, তার ১০ শতাংশ ছাড় পেতেন গ্রাহক। কিন্তু এ সুবিধা তুলে নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের পর এ সুবিধা পাবেন না ‘ভালো’ ঋণগ্রহীতা।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে।

আগে কোনো গ্রাহকের কাছ থেকে ১০০ টাকা সুদ পাওনা হলে তা আদায় করে ১০ টাকা ফেরত দিতে হতো। গ্রাহক ‘ভালো’ ঋণগ্রহীতা হলে প্রতি বছর এই সুবিধা পেতেন। ২০১৯ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ সুবিধা পাবেন ‘ভালো’ ঋণগ্রহীতা। পরবর্তীতে এ সুবিধা আর পাবেন না। তবে ভালো ঋণ গ্রহীতা চিহ্নিতকরণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে। প্রতি বছরের ডিসেম্বর মাস শেষে চিহ্নিত করতে হবে ভালো ঋণ গ্রহীতাকে।

এ ক্ষেত্রে চলমান ঋণে গ্রহীতার ঋণ হিসাব সংশ্লিষ্ট বছরের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত এবং অব্যবহিত পূর্ববর্তী ৪টি ত্রৈমাসিকে অশ্রেণীকৃত-স্ট্যান্ডার্ড অবস্থায় থাকলে এবং নবায়ন পত্রের শর্তানুসারে উক্ত ঋণ হিসাবে লেনদেন সন্তোষজনক হলে সংশ্লিষ্ট গ্রাহক ভালো ঋণ/বিনিয়োগ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচিত হবেন।

তলবী ঋণের গ্রহীতা সংশ্লিষ্ট বছরের ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত এবং অব্যবহিত পূর্ববর্তী ৪টি ত্রৈমাসিকে সকল তলবী ঋণের অশ্রেণীকৃত-স্ট্যান্ডার্ড অবস্থায় সমন্বিত হলে সংশ্লিষ্ট গ্রাহক ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচিত হবেন। মেয়াদী ঋণ গ্রহীতার ঋণ হিসাবে বিগত ১২ মাসের সকল কিস্তি নির্ধারিত তারিখের মধ্যে নিয়মিতভাবে পরিশোধিত হলে এবং অব্যবহিত পূর্ববর্তী ৪টি ত্রৈমাসিকে অশ্রেণীকৃত-স্ট্যান্ডার্ড অবস্থায় থাকলে সংশ্লিষ্ট গ্রাহক ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচিত হবেন।

কোন ঋণ গ্রহীতার একাধিক ঋণ থাকলে প্রতিটি ঋণের জন্য উল্লিখিত শর্তসমূহ পরিপালন করলেই কেবল সংশ্লিষ্ট ঋণ গ্রহীতা ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচিত হবেন। সকল ক্ষেত্রেই কোন ব্যাংকে বিগত ১২ মাসে কোন গ্রাহক বা তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের নামে বিরূপমানে শ্রেণীকৃত ঋণ থাকলে উক্ত গ্রাহক ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচিত হবেন না।

যৌক্তিক কারণে ঋণ/বিনিয়োগ হিসাব প্রথমবার পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের মাধ্যমে নিয়মিত করা হলে উপরে বর্ণিত শর্তাবলী পরিপালন সাপেক্ষে উক্ত ঋণ গ্রহীতাকে ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে বিবেচনা করা যাবে। তিন বছর বা তদূর্ধ্ব সময়কাল ধরে ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে চিহ্নিত গ্রাহকদের ছবি, প্রোফাইল ইত্যাদির সমন্বয়ে ব্যাংক বিশেষ বুকলেট/ম্যাগাজিন প্রকাশ করতে পারবে। এক্ষেত্রে প্রথম প্রকাশের ক্ষেত্রে ভালো ঋণ গ্রহীতাদের সংখ্যা অধিক হলে অপেক্ষাকৃত দীর্ঘসময় ধরে যে সকল ঋণ গ্রহীতা ভালো ঋণ গ্রহীতা হিসেবে চিহ্নিত হবেন তাদের নাম বিশেষ বুকলেট/ম্যাগাজিন এ অন্তর্ভূক্তকরণে অগ্রাধিকার পাবে। ব্যাংক বার্ষিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ভালো ঋণ গ্রহীতাদের পুরস্কার প্রদান করতে তাদেরকে সম্মাননার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Tagged