সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

অব্যহত দরপতনে দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা

সময়: বুধবার, জানুয়ারি ৮, ২০২০ ৫:২৫:২২ অপরাহ্ণ


মো. সাজিদ খান : শেয়ারবাজারে ধারাবাহিক দরপতনের কারণে দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা। বাজারের প্রতি তাদের আস্থা সঙ্কট বেড়েছে। এমতাবস্থায় অনেক বিনিয়োগকারী লেনদেন করছেনা। আজ দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে সূচকের পাশাপাশি কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। এছাড়া উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর কমার পাশাপাশি বাজার মূলধনও কমেছে। দিনশেষে আজ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন কমেছে ৪৭ কোটি ৪৯ লাখ ৮৭ হাজার ৮০৭ টাকা ৬০ পয়সা। এদিন বাজার মূলধন কমেছে ৪ হাজার ২৩৬ কোটি ২৫ লাখ ৩২ হাজার ৫৬৯ টাকা ৩৮ পয়সা। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন কমেছে ২ লাখ ১৪ হাজার ৪৭৫ টাকা ১০ পয়সা। এদিন সিএসই’তে বাজার মূলধন কমেছে ৩ হাজার ২৯৭ কোটি ৫০ লাখ ৫৭ হাজার ২৯৮ টাকা ৩০ পয়সা। সংশ্লিষ্ট স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫৩.০৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪২২৮.৩৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ১৯.০৯ পয়েন্ট কমে ৯৫৩.৮৮ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ১৪.৮৮ পয়েন্ট কমে ১৪২১.৩৮ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ৫১টির, কমেছে ২৪৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫১টি কোম্পানির শেয়ারের দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ৯ কোটি ৯১ লাখ ৭৯ হাজার ৩৮০টি শেয়ার এক লাখ ৫০৩ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭৯ কোটি ৯৬ লাখ ২৮ হাজার ৮৪২ টাকা ২০ পয়সা। আজ বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ২৬ হাজার ৪২৬ কোটি ৬১ লাখ ৬৪ হাজার ৯১১ টাকা ৮১ পয়সা।
গতকাল ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স ৫০.৫২ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪২৮১.৪৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ১০.১৫ পয়েন্ট কমে ৯৭২.৯৮ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ১৫.৬৩ পয়েন্ট কমে ১৪৩৬.২৬ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ৪২টির, কমেছে ২৬৯টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৩টি কোম্পানির শেয়ারের দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১১ কোটি ২১ লাখ ১৭ হাজার ৬৩৩টি শেয়ার এক লাখ ২২ হাজার ৪৮২ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩২৭ কোটি ৪৬ লাখ ১৬ হাজার ৬৪৯ টাকা ৮০ পয়সা। ওইদিন বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩০ হাজার ৬৬২ কোটি ৮৬ লাখ ৯৭ হাজার ৪৮১ টাকা ১৯ পয়সা।
ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৪৮টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ২৯টি, কমেছে ১৮৫টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৪টির শেয়ার দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৩টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১০টি, কমেছে ২৬টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৭টির শেয়ার দর। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৪টি এবং কমেছে ৬টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫০টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৮টি, কমেছে ৩২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১০টির শেয়ার দর। এছাড়া, ৩৬টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বেড়েছে ৬টির, কমেছে ১৪টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৬টির দর।
গতকাল ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৪৯টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ২২টি, কমেছে ১৯৭টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩০টির শেয়ার দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৩টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৭টি, কমেছে ৩৫টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির শেয়ার দর। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২টি, কমেছে ৭টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫২টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১১টি, কমেছে ৩০টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১১টির শেয়ার দর। এছাড়া, ৩৬টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বেড়েছে ১টির, কমেছে ২০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৫টির দর।
আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৪৯ কোম্পানির মোট ৬ কোটি ৪৪ লাখ ৪১ হাজার ৪৫৯টি শেয়ার ৬৫ হাজার ৫৫৯ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯৫ কোটি ৪১ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৩ কোম্পানির এক কোটি ৭২ লাখ ৯১ হাজার ৫৫৪টি শেয়ার ১৫ হাজার ২৫২বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪২ কোটি ৬০ লাখ ৭৪ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির এক কোটি ৪ লাখ ৫৭ হাজার ১২৩টি শেয়ার ১৫ হাজার ৬৩৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৫ কোটি ৬৪ লাখ ৮২ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫০ কোম্পানির ৩৯ লাখ ৮৯ হাজার ২১১টি শেয়ার ৪ হাজার ১৮ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪ কোটি ১৩ লাখ ৩৬ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৬টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫৯ লাখ ৬১ হাজার ১৭১টি ইউনিট এক হাজার ৬৯০ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩ কোটি ৯১ লাখ ১০ হাজার টাকা।
গতকাল ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৪৯ কোম্পানির মোট ৭ কোটি ২১ লাখ ৯৯ হাজার ৫২৫টি শেয়ার ৬৮ হাজার ৩১৩ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২১৩ কোটি ৭৭ লাখ ৮৩ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৩ কোম্পানির এক কোটি ৫৮ লাখ ৩২ হাজার ৩৮৮টি শেয়ার ১৫ হাজার ৫৩৬বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪০ কোটি ৫৩ লাখ ৭৮ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির এক কোটি ৬৩ লাখ ৯৯ হাজার ১৫৬টি শেয়ার ৩১ হাজার ৯৯২ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪৭ কোটি ৭১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫২ কোম্পানির ৬৫ লাখ ১০ হাজার ৭৬২টি শেয়ার ৬ হাজার ৫৭৬ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১০ কোটি ৪২ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৬টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫৮ লাখ ২১ হাজার ৬৫৭টি ইউনিট এক হাজার ৬৮৫ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।
প্রধান খাতগুলোর মধ্যে আজ ব্যাংক খাতে ১ কোটি ৭২ লাখ ১৭ হাজার ৫৫৭টি শেয়ার ৭ হাজার ৪৭১বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩২ কোটি ৮৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা। বীমা খাতে ৮৯ লাখ ৬ হাজার ৩১৮টি শেয়ার ৯ হাজার ৫৩৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৬ কোটি ৪১ লাখ ১০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৪১ লাখ ৭৬ হাজার ২টি শেয়ার ২ হাজার ৭২৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৫ কোটি ৯৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা। প্রকৌশল খাতে ১ কোটি ৩৪ লাখ ৭৪ হাজার ৩৬৫টি শেয়ার ১৩ হাজার ৩৪৮বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৫ কোটি ১০ লাখ ২০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৫৪ লাখ ৮৫ হাজার ৯৩২টি শেয়ার ৯ হাজার ৯৪০বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৮ কোটি ১৬ লাখ ১০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ১ কোটি ৭২ লাখ ২ হাজার ৩৭৩টি শেয়ার ১২ হাজার ৭৫৫বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৫ কোটি ৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৪০ লাখ ১০ হাজার ৬৩টি শেয়ার ৫ হাজার ৯১২বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২১ কোটি ৫৭ লাখ টাকা।
গতকাল ব্যাংক খাতে ২ কোটি ১৯ লাখ ১৮ হাজার ৪৭১টি শেয়ার ৭ হাজার ১১৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪৬ কোটি ৩২ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বীমা খাতে এক কোটি ২৯ লাখ ৭৭ হাজার ৫০৯টি শেয়ার ১৩ হাজার ৮৯০বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪৩ কোটি ৭৮ লাখ ৪০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৫০ লাখ ৭১ হাজার ৯১০টি শেয়ার ৩ হাজার ৬৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৬ কোটি ৮৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা। প্রকৌশল খাতে ১ কোটি ৪১ লাখ ৭৮ হাজার ১৫৭টি শেয়ার ১৬ হাজার ৩৩৪বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৫৪ লাখ ৫৭ হাজার ৮০৩টি শেয়ার ৯ হাজার ৩৭৪বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৩ কোটি ৬৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ১ কোটি ৬৯ লাখ ৬৮ হাজার ৫৮৯টি শেয়ার ১৩ হাজার ৪৩৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৩ কোটি ৫০ লাখ ৯০ হাজার টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৩৫ লাখ ৯৩ হাজার ৫৪৫টি শেয়ার ৫ হাজার ৮৭০বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৮ কোটি ৮৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসই’র সার্বিক সূচক ১২২.৭৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১২৮৮৭.৬৯ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৭৫.১৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৭৮০৬.০৫ পয়েন্টে। আজ মোট ২১৯টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ৪৭টির, কমেছে ১৪৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৬ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৫৪ লাখ ৯০ হাজার ৪৪টি শেয়ার ও ইউনিট ৮ হাজার ৭১৫ বার হাতবদল হয়েছে, যার মূল্য ছিল ১৪ কোটি ৫৩ লাখ ৫৪ হাজার ৯৬৫ টাকা ৯০ পয়সা। আজ সিএসই’র বাজারমূলধন ছিল ২ লাখ ৫৭ হাজার ৫৫২ কোটি ৪৩ লাখ ২৮ হাজার ৪৮৮ টাকা ৯০ পয়সা।
গতকাল চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক ২২৩.১১ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৩০১০.৪৬ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ১৩৫.৯৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৭৮৮১.২২ পয়েন্টে। ওইদিন মোট ২৪৮টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ৪১টির, কমেছে ১৮৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২১ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬১ লাখ ৪৭ হাজার ৩৮টি শেয়ার ও ইউনিট ১৫ হাজার ৯০ বার হাতবদল হয়েছে, যার মূল্য ছিল ১৪ কোটি ৫৫ লাখ ৬৮ হাজার ৯৪১ টাকা। ওইদিন সিএসই’র বাজারমূলধন ছিল ২ লাখ ৬০ হাজার ৮৪৯ কোটি ৯৩ লাখ ৮৫ হাজার ৭৮৭ টাকা ২০ পয়সা।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged