‘আতা খান’কে বাদ দিয়ে অডিটর প্যানেল পুনর্গঠন বিএসইসি’র

সময়: বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯ ১১:৪৫:৩৯ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বা প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) কোম্পানির অডিট কার্যক্রম সম্পন্ন করতে নিরীক্ষকদের বিস্তারিত তালিকা পুনর্গঠন করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এ নিরীক্ষক প্যানেল থেকে ‘আতা খান অ্যান্ড কোং’-কে বাদ দিয়েছে কমিশন। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
গতকাল মঙ্গলবার বিএসইসির পুনর্গঠনকৃত অডিটর প্যানেল প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত অডিট প্যানেলে নিরীক্ষকের নামসহ নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রত্যেক চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টের নামের তালিকাও দেয়া হয়। এ তালিকার বাইরে কোনো অডিট ফার্মকে দিয়ে আইপিও’র কোম্পানি বা তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানি অডিট করাতে পারবে না।
বিএসইসির প্রকাশ করা অডিট প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- এ হক অ্যান্ড কোং চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস, এ কাশেম অ্যান্ড কোং, এ ওহাব অ্যান্ড কোং, এসিএনএবিআইএন, আহমেদ মাশুক অ্যান্ড কোং, আহমেদ জাকির অ্যান্ড কোং, এআরটিআইএসএএন, আশরাফ উদ্দিন অ্যান্ড কোং, আজিজ হালিম খায়ের চৌধুরী, ফেমস অ্যান্ড আর, জি কিবরিয়া অ্যান্ড কোং, হুদা ভাসি চৌধুরী অ্যান্ড কোং, হাওলাদার ইউনুস অ্যান্ড কোং, হুসাইন ফরহাদ অ্যান্ড কোং, ইসলাম আফতাব কামরুল অ্যান্ড কোং, ইসলাম কাজি শফিক অ্যান্ড কোং, কে এম আলম অ্যান্ড কোং, কে এম হাসান অ্যান্ড কোং, কাজি জহির খান অ্যান্ড কোং, খান ওহাব শফিক রহমান অ্যান্ড কোং, এম জে আবেদীন অ্যান্ড কোং, এম এম রহমান অ্যান্ড কোং, ম্যাবস অ্যান্ড জে পার্টনার্স অ্যান্ড কোং, মাহফিল হক অ্যান্ড কোং, মালেক সিদ্দিক ওয়ালি, মাশিহা মুহিত হক অ্যান্ড কোং, নুরুল ফারুক হাসান অ্যান্ড কোং, অক্টোখান, পিনাকি অ্যান্ড কোম্পানি, রহমান মোস্তফা আলম অ্যান্ড কোং, রহমান রহমান হক, এস এফ আহমেদ অ্যান্ড কোং, এস কে বরুয়া অ্যান্ড কোং, সিদ্দিক বসাক অ্যান্ড কোং, সিরাজ খান বসাক অ্যান্ড কোং, সাইফুল সামসুল আলম অ্যান্ড কোং, তোহা খান জামান অ্যান্ড কোং এবং জোহা জামান কবির রশিদ অ্যান্ড কোং চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস।
এর আগে কমিশনের ৭০৩তম কমিশন সভায় আতা খান অ্যান্ড কোং (একেসি) চার্টার্ড একাউন্টেন্টসকে অডিটর প্যানেল থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। অডিট প্রতিষ্ঠানটি বিধিবদ্ধ নিরীক্ষক হিসেবে জেনারেশন নেক্সট ফ্যাশনস লিমিটেডকে বিধি বহির্ভূতভাবে তিন বছরের অধিক নিরীক্ষা করে। এতে প্রতিষ্ঠানটি সিকিউরিটিজ আইন ও বিধি-বিধানগুলো লঙ্ঘন এবং তার অডিট রিপোর্টে অন্তর্ভুক্ত করতে ব্যর্থ হওয়ায় সিকিউরিটিজ আইন ও বিধি-বিধানসমূহ লঙ্ঘিত হয়।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৬০০ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged