কর হার কমাতে শিগগিরই কমিটি গঠন : অর্থমন্ত্রী

সময়: রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯ ৯:২৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের বর্তমান কর হার কমাতে দ্রুত একটি কমিটি করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।
গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর রেডিসন হোটেলে ২০১৮-২০১৯ করবর্ষে সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদে করদাতাদের ‘ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা প্রদান’ অনুষ্ঠানে তিনি একথা জানান। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)-এর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান সব করদাতাকে ধন্যবাদ জানান। প্রসঙ্গত: করদাতাদের উৎসাহিত ও উদ্বুদ্ধকরণে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উদ্যোগে ২০১০ সাল থেকে প্রতিবছর সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদে কর প্রদানকারীদের সম্মাননা দেয়া হয়।
অর্থমন্ত্রী বলেন, আমি এই ওয়াদা রাখব। আমি ট্যাক্স রেট কমাবই, কমাব। কিন্তু করের পরিমাণ ঠিক রাখব।
কর থেকে রাজস্ব আয় না কমিয়ে করদাতাদের চাপ কীভাবে কমাবেন, তার পথও খুঁজছেন তিনি।
তিনি বলেন, আমি খুব দ্রুতই একটি কমিটি করে দেব। তারা আমার জন্য ইকুইলিব্রিয়াম খুঁজে বের করে দিবে। অর্থনৈতিক গবেষণার যত তথ্য এবং সূত্র আছে, সেগুলো ব্যবহার করে আমরা বের করব করের হার কত কমালে আমার তিন লক্ষ ২৫ হাজার কোটি টাকা আহরণ করতে পারব।
করদাতাদের ‘দেশপ্রেমিক’ ও ‘ভালো মানুষ’ অভিহিত করে অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনারা দেশপ্রেম থেকে কর দেবেন এবং এই বিশ্বাস নিয়ে কর দেবেন যে সরকার এই টাকাগুলো ভালো কাজে ব্যয় করে।
২০০৮ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রতি বছর কর আদায়ে প্রবৃদ্ধি ১৪ থেকে ১৭ শতাংশ হওয়ার তথ্য জানিয়ে তিনি বলেন, এটা বিশ্বের কোনো দেশের তুলনায় কম নয়।

করদাতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, পৃথিবীর বড় বড় আর্থিক প্রতিষ্ঠান এখন বাংলাদেশকে চেনে তার অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির কারণে, এর এই সুনামের অংশীদার করদাতারাও।
নিজেরা কর দেয়ার পাশাপাশি অন্যদেরও কর দানে উদ্বুদ্ধ করতে করদাতাদের প্রতি আহ্বান জানান অর্থমন্ত্রী।
কর দিতে জনগণকে অভয় দিয়ে তিনি বলেন, যেসব ত্রুটি-বিচ্যুতি আপনারা দেখছেন, এগুলো আস্তে আস্তে সব কেটে যাবে। আমি কথা দিচ্ছি, এই সমস্যা থাকবে না। আমাদের এনবিআর-এর চেয়ারম্যান সাহেব বলেছেন যে, কোনো সমস্যা হলে উনি দেখবেন। উনার সাথে আমিও আছি। যদি আপনারা কোনো সমস্যায় পড়েন, আমার কাছে আসবেন। আপনার নির্বিঘ্নে কর দেন।
করদাতাদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ‘রক্তসঞ্চালন’ অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘সবাই প্রতিযোগিতা করে কর দেন, কে কার চেয়ে বেশি কর দিতে পারেন।’
২০১৮-২০১৯ করবর্ষে ব্যক্তি কোম্পানি ও অন্যান্য ক্যাটাগরিতে ১৪১ জনকে ট্যাক্স কার্ড দেয়া হয়। আর জেলাভিত্তিক সর্বোচ্চ আয়কর প্রদানকারী হিসেবে ৩৩৪ জনকে এবং দীর্ঘমেয়াদে আয়কর প্রদানকারী ১৪৭ জনকেসহ মোট ৫২১ জনকে সম্মাননা দেয়া হয়।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪১৯ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged