কাজ শুরু করেছে বিএসইসি কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটি

সময়: বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০১৯ ৬:২৮:০১ পূর্বাহ্ণ


তালিকাভুক্ত কিছু কোম্পানির ‘অস্বাভাবিক’ লেনদেন এবং স্টক এক্সচেঞ্জে ‘অস্বাভাবিক’ ট্রেড ভলিউম খতিয়ে দেখতে কাজ শুরু করেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন’ (বিএসইসি) কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটি। গত মঙ্গলবার দ্বিতীয় দিনের মতো স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক করেছে বিএসইসি। এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মার্চেন্ট ব্যাংকের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে মার্চেন্ট ব্যাংকের প্রতিনিধিদের কাছে তাদের লেনদেন সম্পর্কিত তথ্য চাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। পুঁজিবাজারে টানা দরপতনের কারণ জানতে তদন্ত কমিটির পক্ষ থেকে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোকে একটা ফরম দেয়া হয়েছে। ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে আগামী রোববারের মধ্যে তদন্ত কমিটি বরাবর জমা দিতে বলা হয়েছে।
এর আগের দিন (সোমবার) শীর্ষ ব্রোকারেজ হাউজগুলোর সঙ্গে বৈঠক করেছে বিএসইসি। ওই বৈঠকে দুই স্টক এক্সচেঞ্জের শীর্ষ ব্রোকারদের কাছে টানা বাজার পতনের কারণ জানাতে বলা হয়। অন্যদের মধ্যে বৈঠকে ব্রোকারেজ হাউজের অথোরাইজড প্রতিনিধিদের নিয়ন-নীতি অনুসরণ করে শেয়ার কেনাবেচার পাশাপাশি বাজারের স্থিতিশীলতা রক্ষায় শীর্ষ ব্রোকারদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের অনুরোধ জানানো হয় বলে জানা যায়।
এদিকে তদন্ত কমিটির সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মার্চেন্ট ব্যাংকের প্রতিনিধিরা সম্প্রতি পুঁজিবাজারে টানা দরপতনের জন্য বেশ কিছু কারণকে দায়ী করেছেন বলে জানা গেছে। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হচ্ছেÑ পুঁজিবাজারে তারল্য সঙ্কট, পিপলস লিজিং কেলেঙ্কোরি, রিটেইনড আর্নিংস ও বোনাসে কর আরোপ এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দুরাবস্থাসম্পর্কিত সংবাদ, বাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের অনাস্থা ইত্যাদি।

প্রসঙ্গত: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কিছু কোম্পানির ‘অস্বাভাবিক’ লেনদেন এবং স্টক এক্সচেঞ্জে ‘অস্বাভাবিক’ ট্রেড ভলিউম খতিয়ে দেখতে গত রোববার (২১ জুলাই) চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিএসইসি। গঠিত কমিটিকে আগামী ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

এদিকে গত মঙ্গলবার উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে সূচকের হঠাৎ উল্লম্ফনের পর গতকাল আবার মন্দ অবস্থানে চলে গেছে। গতকাল ডিএসই প্রধান সূচক আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৪৬ পয়েন্ট কমেছে এবং সিএসই প্রধান সূচক ৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ বেড়েছে।

Share
নিউজটি ৩৩৬ বার পড়া হয়েছে ।