bangladesh bank

ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালের পদত্যাগ দাবিতে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিক্ষোভ

সময়: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০ ৯:২৮:২৫ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালের পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা। মুজিববর্ষ উদযাপন সহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে সাক্ষাত করতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের দু’টি সংগঠনকে রীতিমত ‘অপমান’ করেছেন আহমেদ জামাল। এ অভিযোগ বিক্ষুব্ধ কর্মকর্তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বরাবর একটি স্মারকলিপি পেশ করেছেন। এতে ডেপুটি গভর্নরের অসৌজন্যমূলক আচরণের বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়েছে।
আজ বাংলাদেশ ব্যাংকের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন কর্মকর্তারা। বিক্ষোভ শেষে বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার্স ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল, ঢাকা এবং বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার্স এসোসিয়েশন ঢাকার নেতৃবৃন্দ গভর্নরের কাছে এই স্মারকলিপি জমা দেন।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা কর্মচারীদের গৃহনির্মাণ প্রকল্পে সিলিং বৃদ্ধিকরণ, কর্মকর্তাদের স্টাফ বাসের মান বৃদ্ধি, অফিসার্স ক্যান্টিন চালু, ডে কেয়ার সেন্টারের মান উন্নয়নসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার জন্য একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও সাক্ষাতের জন্য সময় দেননি আহমেদ জামাল। সর্বশেষ ১৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার্স ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ঢাকা এবং বাংলাদেশ ব্যাংক অফিসার্স এসোসিয়েশন ঢাকা এর পর্ষদ সদস্যগণ ডেপুটি গভর্নরের সাক্ষাতের জন্য গেলে তিনি অহেতুক উত্তেজিত হয়ে নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করতে অসম্মতি জানান। একই সময়ে তিনি উচ্চস্বরে অদাপ্তরিক ভাষা ও ভঙ্গিমায় কর্মকর্তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার ও অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। তা সত্ত্বেও নেতৃবৃন্দ বিনয়ের সঙ্গে পুনরায় অনুরোধ জানালে তিনি সাক্ষাৎপ্রার্থী বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তাদের দ্বারা নির্বাচিত প্রতিনিধিদেরকে তার দপ্তরে প্রবেশ করতে না দিয়ে বরং নিজ আসন থেকে উঠে এসে নিজ হাতে সজোরে কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেন, যা অনভিপ্রেত এবং শিষ্টাচার পরিপন্থী।
‘উল্লেখ্য, মুজিব বর্ষ উদযাপন কমিটির সদস্যরা নেতৃবৃন্দের সঙ্গে অবস্থান করছিলেন। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তাদের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধি পরিষদের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এরূপ অপেশাদার ও অপ্রত্যাশিত আচরণে আমরা স্তম্ভিত ও বাকরুদ্ধ। ঘটনাটি বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বস্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। মানবসম্পদ বিভাগের দায়িত্বে থাকা একজন ডেপুটি গভর্নরের এরূপ আচরণ মানব সম্পদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার অন্তরায়। দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ইতিহাসে এরকম ন্যাক্কারজনক ঘটনা নজিরবিহীন।’
স্মারকলিপিতে আরও উল্লেখ করা হয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রশাসনের দায়িত্বে নিয়োজিত ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালের এরূপ আচরণের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। আমরা মনে করি, তার এরূপ আচরণের মাধ্যমে তিনি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর পদে থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন। তিনি এই পদে বহাল থাকলে মুজিববর্ষ উদযাপন কর্মসূচিতেও নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু প্রতিকারের জন্য আপনাকে (গভর্নর) বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি। অন্যথায় কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে তার দায়ভার এককভাবে ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামালের উপর বর্তাবে।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৪৮ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged