তালিকাভুক্তিতে আবেদন করেছে ৪ বীমা কোম্পানি

তালিকাবহির্ভুত ২৭ বীমা কোম্পানি

সময়: মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২০ ২:৫০:৪৯ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : তালিকাবহির্ভুত ২৭ বীমা কোম্পানির মধ্যে তালিকাভুক্তির জন্য আবেদন করেছে ৪ বীমা কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো- এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্স, দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, ক্রিস্টল ইন্স্যুরেন্স এবং সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। এছাড়া আরও ৫ বীমা কোম্পানির আর্থিক সক্ষমতা রয়েছে। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্র্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির সক্ষমতা থাকা বাকি ৫ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে-গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড, এলআইসি বাংলাদেশ লিমিটেড, সেনাকল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ও চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ও মেঘনা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড।
বীমা খাতের কোম্পানিগুলোকে অনুমোদন পাওয়ার তিন বছরের মধ্যে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হতে হয়। কিন্তু তিন বছর সময়সীমা পার হওয়ার পরও ২৭টি বীমা কোম্পানি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়নি। এর মধ্যে পুরনো কোম্পানি ১২টি ও নতুন ১৫টি। গত ১৬ সেপ্টেম্বর পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক তালিকাবহির্ভুত কোম্পানিগুলোকে ডিসেম্বরের মধ্যে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার নির্দেশ দেয় আইডিআরএ। অন্যথায় বীমা আইনানুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানায় নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাটি।
জানা যায়, পুঁজিবাজারে তালিকাবহিভূত ২৭ বীমা কোম্পানির মধ্যে ১৮টি জীবন বীমা কোম্পানি এবং ৯টি নন-লাইফ বা সাধারণ বীমা কোম্পানি। জীবন বীমা কোম্পানিগুলো হলো- বায়রা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, গোল্ডেন লাইফ ইন্স্যুরেন্স, হোমল্যান্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সানফ্লাওয়ার লাইফ ইন্স্যুরেন্স, বেস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স, চার্টার্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স, এনআরবি গ্লোবাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্রটেক্টিভ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, জেনিথ ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, আলফা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ডায়মন্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স, গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স, যমুনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, মার্কেন্টাইল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, স্বদেশ লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ট্রাস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং লাইফ ইন্স্যুরেন্স কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ। অন্যদিকে ৯টি নন-লাইফ বীমা কোম্পানি হলো- ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স, মেঘনা ইন্স্যুরেন্স, সাউথ এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, ইসলামী কমার্শিয়াল ইন্স্যুরেন্স, ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স, দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্স, সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স এবং সিকদার ইন্স্যুরেন্স।
এদিকে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) আইন করে তালিকাভুক্তির বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু শর্ত বেঁধে দিয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম শর্তগুলো হচ্ছে: আর্থিক স্বচ্ছলতা এবং বিগত বছরে মুনাফা অর্জন । অনেক বীমা কোম্পানির পর্যাপ্ত পরিশোধিত মূলধনের ঘাটতি রয়েছে। বীমা আইন অনুযায়ী যে পরিমাণ পরিশোধিত মূলধন নির্ধারণ করা হয়েছে বেশির ভাগ বীমা কোম্পানির মূলধন তার কম। দ্বিতীয় শর্তের বেলায় মুনাফা অর্জন করা তো দূরের কথা, প্রায় সবগুলো বীমা কোম্পানি আর্থিক অস্বচ্ছলতায় ভুগছে। এসব শর্তসমূহ সঠিক বা যথাযথভাবে পূরণ না করে বীমা কোম্পানির পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত করা সম্ভব নয় বলে জানা গেছে।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪০৩ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged