কারেকশন সূচক লেনদেন dse-cse

দরপতন দিয়ে সপ্তাহ শুরু

সময়: সোমবার, জুলাই ১৫, ২০১৯ ৫:০২:০৯ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ব্যাপক দরপতন হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরুতে সূচকের তীর উপরের দিকে থাকলেও তার স্থায়িত্ব ছিল ১০ মিনিট। এরপর সেল প্রেসারে সূচকের তীর নিচের দিকে নামতে দেখা গেছে। এরই ধারাবাহিকতায় টানা ৬ কার্যদিবস ধরে দরপতন হলো পুঁজিবাজারে। গতকাল লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অঙ্কে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৫৪ কোটি ৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকা।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, গতকাল ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৪২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫১৭৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১৯০ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮৫৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৩টির, কমেছে ২৬৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৩৫৪ কোটি ৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫২২২ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১১৯৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৮৫৭ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৩৫১ কোটি ৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা। সে হিসেবে গতকাল ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২ কোটি ৯৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গত সপ্তাহের ধারাবাহিকতায় চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসেও সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। গতকাল লেনদেনের শুরু থেকেই সূচক নিচে নামতে থাকে।
লেনদেনের মাঝামাঝি সময়ে কিছুটা ওঠানামার মধ্যে ছিল সূচক। কিন্তু দিন শেষে পতনেই শেষ হয় লেনদেন।
গতকাল সূচকের সঙ্গে কমেছে বিভিন্ন কোম্পানির শেয়ার দর। মোট লেনদেনও গত বৃহস্পতিবারের তুলনায় কমেছে। সিএসই সার্বিক মূল্য সূচক ৯১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৮৮১ পয়েন্টে। এছাড়া সিএসইএক্স সূচক ৫২ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৬৪৫ পয়েন্টে নেমে আসে।
এদিকে সিএসইতে মোট ২৭০টি কোম্পানির লেনদেন হয়েছে। যার মধ্যে দর বেড়েছে ৬০টি, কমেছে ১৯৪টি এবং আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টি কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬০ লাখ ৫৫ হাজার ৫৯৫টি শেয়ার ৬ হাজার ৯১০ বার হাতবদল হয়েছে। যার মোট মূল্য ছিল ১১ কোটি ৬৮ লাখ ৪ হাজার ৮৪ টাকা। যা আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৫৩ লাখ ১৩ হাজার ৬৪৫ টাকা কম। আগের দিন মোট লেনদেন হয়েছিল ১২ কোটি ২১ লাখ ১৭ হাজার ৭২৯ টাকা। সিএসইতে টপটেন গেইনারের ১০ কোম্পানির মধ্যে শীর্ষে ছিল ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স। এ কোম্পানির দর বেড়েছে ১০ শতাংশ। ৯.৮৮ শতাংশ দর বেড়ে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজ। অন্যদিকে দর হারানোর দিক থেকে শীর্ষে ছিল সিমটেক্স ইন্ডস্ট্রিজ। এ কোম্পানির দর কমেছে ৯.৮১ শতাংশ।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ২৩৬ বার পড়া হয়েছে ।