দুর্বল কোম্পানির আইপিও থেকে বিরত থাকা উচিত : স্বপন কুমার বালা

সময়: মঙ্গলবার, অক্টোবর ১, ২০১৯ ৯:৪৫:৪২ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : দুর্বল কোম্পানির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) থেকে বিনিয়োগকারীদের বিরত থাকা উচিত বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার ড. স্বপন কুমার বালা। তিনি বলেন, বিনিয়োগ শিক্ষার মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা কোম্পানির আর্থিক বিচার বিশ্লেষণ করতে পারেন। বিনিয়োগ শিক্ষা অর্জন করতে পারলে ভালো ও দুর্বল কোম্পানি চিহ্নিত করা সম্ভব।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ প্রাঙ্গণে গতকাল সোমবার বিকালে ‘রিং দ্য বেল ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসি’ উদ্বোধনের সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিনিয়োগকারীদের আর্থিক সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ফাইন্যান্সিয়াল কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ইনচার্জ) আব্দুল মতিন পাটোয়ারি।
ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসির ওপর পেপার প্রেজেন্টেশন করেন ডিএসই’র মহাব্যবস্থাপক এবং কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ আসাদুর রহমান। ডিএসই’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল হাশেম ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসির ওপর সেশন চেয়ার হিসেবে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ডিএসই’র পরিচালক ওয়ালিউল ইসলাম, মিনহাজ মান্নান ইমন, মোহাম্মদ হানিফ ভূঁইয়া, ডিএসই’র সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং ডিবিএ’র সভাপতি মো. শাকিল রিজভী উপস্থিত ছিলেন।
ড. স্বপন কুমার বালা বলেন, ২০১৭ সালে সর্বপ্রথম ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশন (আইওএসকো) বিশ্বব্যাপী বিনিয়োগ শিক্ষা কার্যক্রমের ঘোষণা দেয়। সেই থেকে আমরা ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসির কার্যক্রম শুরু করি। বিএসইসি’র নির্দেশক্রমে ডিএসই, সিএসই, ট্রেকহোল্ডার, মার্চেন্ট ব্যাংকসহ সকল অংশীজনরা এই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বিনিয়োগ শিক্ষা ছাড়া পুঁজিবাজারে শিক্ষিত ও সচেতন বিনিয়োগকারী সৃষ্টি সম্ভব নয়। বিনিয়োগ শিক্ষার মাধ্যমেই বিনিয়োগকারীরা কোম্পানিগুলোর আদিঅন্ত বিচার বিশ্লেষণ করতে পারবেন।
তিনি বলেন, পুঁজিবাজারে ইস্যুয়ার থেকে শুরু করে সবাইকে দায়িত্বশীল হওয়া উচিত। একই সঙ্গে বিনিয়োগকারীদের উচিত খারাপ কোম্পানির প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) আবেদন করা থেকে বিরত থাকা। কিন্তু সবাই কেন মরিয়া হয়ে পচা কোম্পানিতে ওভার সাবস্ক্রিপশন করেন?
তিনি আরো বলেন, আমরা যখন দেখি একটি কোম্পানিতে সর্বনিম্ন ২০ গুণ বেশি আবেদন জমা পড়ে। তখন সেসব কোম্পানিগুলোকে খারাপ বলতে পারি না। কমিশন একটি সিস্টেমের মধ্যে আইপিও’র অনুমোদন দিয়ে থাকে। তবে এ মডিউল পরিবর্তন করা দরকার, প্রয়োজনে পরিবর্তন করা হবে।
তিনি বলেন, আইপিও’র সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অনেকগুলো কোম্পানি কোনো শাস্তি পায়নি। বিশেষ করে ক্রেডিট রেটিং কোম্পানিগুলোকে কোনো শাস্তি দিতে দেখিনি। এদের চিহ্নিত করা উচিত। তবে ১৬টি বড় বড় অডিট ফার্মকে জরিমানা করা হয়েছে।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪১১ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged