ধারাবাহিকভাবে নিট বিনিয়োগ প্রত্যাহার করছে বিদেশিরা

সময়: সোমবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ ১১:০৭:১৫ পূর্বাহ্ণ


সালাহ উদ্দিন মাহমুদ : পুঁজিবাজারে বিদেশিরা পোর্টফোলিও নিট বিনিয়োগ ধারাবাহিকভাবে কমিয়ে আনছেন। টানা ৬ মাস ধরে নিট বিনিয়োগ প্রত্যাহারের ধারা অব্যাহত রেখেছেন তারা। এতে নেতিবাচক মার্কেটে বিনিয়োগকারীদের আস্থার সঙ্কট আরো প্রকট হচ্ছে। চলতি বছরের শেষ ৬ মাসে বিদেশি পোর্টফোলিও বিনিয়োগ প্রত্যাহার হয়েছে ৬২০ কোটি ৮১ লাখ টাকার। আর সর্বশেষ জুলাই মাসে বিদেশিরা ১০২ কোটি ৫৪ লাখ টাকার নিট বিনিয়োগ প্রত্যাহার করেছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে বাজারে মন্দা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এতে বিদেশিরা তাদের বিনিয়োগ নিয়ে ভরসা পাচ্ছেন না। টানা দরপতনে সরকার, নিয়ন্ত্রক সংস্থা কিংবা স্টেকহোল্ডারদের পক্ষ থেকে বাজার নিয়ে বড় কোনো সিদ্ধান্ত না আসায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে পুঁজিবাজার বিশ্লেষক অধ্যাপক আবু আহমেদ ‘দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন’কে বলেন, ‘এখন বাংলাদেশে পোর্টফোলিও বিনিয়োগ করতে বিদেশিরা ভরসা পাচ্ছেন না। তারা হয়তো আরো ভালো অপশন খুঁজচ্ছেন। কারণ এখানে ভালো মৌলভিত্তির কোম্পানির সংখ্যা কম।’
তিনি আরো বলেন, ‘বাজারে কয়েক মাস যাবৎ মন্দা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এতে স্থানীয় বিনিয়োগকারীরা দিশেহারা, সেখানে বিদেশিরা হয়তো ভালো অবশন পেয়ে বিনিয়োগ অন্যখানে সরিয়ে নিচ্ছেন।
বিষয়টি নিয়ে ইউসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রহমত পাশা ‘দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন’কে বলেন, ব্যাংক ও আর্থিক খাতের কোম্পানিগুলোতে কুঋণের পরিমাণ বাড়ছে। এর জন্য বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। পাশাপাশি তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোতে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রভাবও পড়েছে। এতে বিদেশিরা তাদের বিনিয়োগ প্রত্যাহার করছেন। আগস্ট মাসে বিদেশিরা ১৭৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার কিনেছেন। আর এর বিপরীতে শেয়ার বিক্রি করেছেন ২৭৯ কোটি ৩২ লাখ টাকার। সেই হিসাবে আলোচ্য সময়ে ১০২ কোটি ৫৪ লাখ টাকার শেয়ার বেশি বিক্রি করেছেন।
আলোচ্য মাসে বিদেশিদের পোর্টফোলিওতে মোট ৪৫৬ কোটি ১০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা এর আগের মাসে লেনদেন ছিল ৭৮৩ কোটি ৪০ লাখ টাকার। সেই হিসাবে পোর্টফোলিওতে লেনদেনের পরিমাণ কমেছে ৩২৭ কোটি ৩০ লাখ টাকার।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, গত মার্চ মাস থেকে বিদেশি পোর্টফোলিও নিট বিনিয়োগ কমছে। মার্চ মাসে ১২৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা, এপ্রিল মাসে ১৫৪ কোটি ১৯ লাখ টাকা, মে মাসে ৬৫ কোটি ১৭ লাখ টাকা, জুন মাসে ১০ কোটি ৫২ লাখ টাকা, জুলাই মাসে ১৬৪ কোটি ৬৮ লাখ টাকা এবং সর্বশেষ আগস্ট মাসে ১০২ কোটি ৫৪ লাখ টাকার নিট বিনিয়োগ কমেছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে পুঁজিবাজার থেকে বিদেশি পোর্টফোলিও বিনিয়োগ কমেছে ১৮৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা। এর আগে ২০১০-১১ অর্থবছরে বিদেশি নিট বিনিয়োগ কমেছিল ৪০ কোটি ৪৫ লাখ টাকার।
সূত্র বলছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিদেশি পোর্টফোলিওতে ৮ হাজার ২১৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকার মোট লেনদেন হয়। যা এর আগের অর্থবছরে ছিল ১১ হাজার ৭২৯ কোটি ১৭ লাখ টাকার। সেই হিসাবে গেল বছরে লেনদেন কমেছে ৩ হাজার ৫০৯ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। এসময়ে বিদেশি পোর্টফোলিওতে মোট ৪ হাজার ১৭ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার কেনা হয়। এর বিপরীতে শেয়ার বিক্রয় করা হয় ৪ হাজার ২০১ কোটি ৫২ লাখ টাকা। সেই হিসাবে নিট বিনিয়োগ প্রত্যাহার হয় ১৮৩ কোটি ৭১ লাখ টাকা।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৮২ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged