সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

পতন পিছু ছাড়ছেনা শেয়ারবাজারের

সময়: মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯ ৮:১৫:৫৬ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : পতন যেন পিছু ছাড়ছেনা শেয়ারবাজারের। টানা ৪ কার্যদিবস ধরে ধারাবাহিকভাবে কমছে সূচক ও লেনদেন। ধারাবাহিক পতনের কারণে সূচক সাড়ে ৩ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। আজ ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স অবস্থান করছে ৪৫০৬ পয়েন্টে। এর আগে ১১ জুলাই ২০১৬ সালে সর্বনিম্ন ছিল ৪৫০৫ পয়েন্ট। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩০ কোটি ৫৭ লাখ ৭২ হাজার টাকা।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪৫০৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১০১২ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫৪৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৬টির, কমেছে ২০৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির। এদিন ডিএসই’তে মোট ১০ কোটি ৯৯ লাখ ৯২ হাজার ৮৭৫টি শেয়ার এক লাখ ২ হাজার ২১৬ বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ৩০৫ কোটি ৮৭ লাখ ১৭ হাজার ৪২ টাকা ২০ পয়সা। আজ বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪২ হাজার ৮৮২ কোটি ২৬ লাখ ৫৭ হাজার ৮৩ টাকা ৭৮ পয়সা।
গতকাল ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ৬২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ৪৫৩৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ১০২২ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ২১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ১৫৬১ পয়েন্টে। ওইদিন ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৭টির, কমেছে ২৩৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টির। এদিন ডিএসই’তে মোট ১০ কোটি ৪০ লাখ ৫ হাজার ৪৯১টি শেয়ার এক লাখ ১ হাজার ৯১৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ২৭৫ কোটি ২৯ লাখ ৪৪ হাজার ৬০৫ টাকা ৪০ পয়সা। ওইদিন বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪৪ হাজার ৬৫২ কোটি ১১ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৬ টাকা ৫৪ পয়সা।
ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬২টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৬৫টি, কমেছে ১৬০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৩টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৬টি, কমেছে ১৯টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৮টির। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২টি এবং কমেছে ৭টির। ‘জেড’ ক্যাটগরির ৪৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৩টি, কমেছে ১৭টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৯টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ১৩টির, কমেছে ১০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৪টির।
গতকাল ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬১টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৪৬টি, কমেছে ১৭৬টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৯টির। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৩টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৬টি, কমেছে ২২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫টির। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৩টি এবং কমেছে ৬টির। ‘জেড’ ক্যাটগরির ৫০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১২টি, কমেছে ২৯টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৯টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ৭টির, কমেছে ১০টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২০টির।
আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬২ কোম্পানির মোট ৮ কোটি ৪১ হাজার ৩০৯টি শেয়ার ৭৭ হাজার ৬৭১১ বার হাতবদল হয় যার বাজার মূল্য ২২২ কোটি ৩২ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৩ কোম্পানির মোট ১ কোটি ৩৯ লাখ ৫৩ হাজার ৯৩৮টি শেয়ার ১৩ হাজার ৮৪৪বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ৩০ কোটি ৪৬ লাখ ১৪ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৯ কোম্পানির মোট ৬০ লাখ ৪ হাজার ১৪১টি শেয়ার ৫ হাজার ৬৮৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ১৫ কোটি ২৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯ কোম্পানির মোট ৪৫ লাখ ২৪ হাজার ৯৭৮টি শেয়ার ৪ হাজার ৯৫৯ বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ৯ কোটি ৩০ লাখ ৪৬ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুযাল ফান্ডের এক কোটি ৪০ লাখ ৮৯ হাজার ৬১টি ইউনিট ৪ হাজার ৮২ বার হাতবদল হয় যার বাজার মূল্য ১১ কোটি ৭৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা।
গতকাল ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬১ কোম্পানির মোট ৭ কোটি ৬২ লাখ ৫৪ হাজার ৪১২টি শেয়ার ৭৮ হাজার ৪৮১ বার হাতবদল হয় যার বাজার মূল্য ২১৪ কোটি ৫৬ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৩ কোম্পানির মোট ১ কোটি ৫৬ লাখ ৪৭ হাজার ৪৪৭টি শেয়ার ১৩ হাজার ৯৭৩বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ৩২ কোটি ১২ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৯ কোম্পানির মোট ৫৩ লাখ ৩ হাজার ৪৯৬টি শেয়ার৪ হাজার ৮০৭ বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ১৩ কোটি ৪ লাখ ১ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯ কোম্পানির মোট ৫১ লাখ ২৩ হাজার ৩১৬টি শেয়ার ৪ হাজার ৬৩২ বার হাতবদল হয়, যার বাজার মূল্য ৬ কোটি ৮৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুযাল ফান্ডের এক কোটি ২ লাখ ৩১ হাজার ৩৯৯টি ইউনিট ৩ হাজার ৭৫ বার হাতবদল হয় যার বাজার মূল্য ৮ কোটি ৬৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা।
প্রধান খাতগুলোর মধ্যে আজ ব্যাংক খাতে এক কোটি ৬৩ লাখ ১২টি শেয়ার ৬ হাজার ৩৫৬বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ২৭ কোটি ৩৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা। বীমা খাতে এক কোটি ২৩ লাখ ২৮ হাজার ৮৫২টি শেয়ার ১৩ হাজার ৫৯বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ৩৬ কোটি ৫ লাখ টাকা। আর্থিক খাতে ৫৪ লাখ ৯৫ হাজার ১২৭টি শেয়ার ৩ হাজার ৪০৫বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ৮ কোটি ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা। প্রকৌশল খাতে ৭০ লাখ ৪৩ হাজার ১১৬টি শেয়ার ১৩ হাজার ৬৬৬বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ২৫ কোটি ৯৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৫৫ লাখ ৭০ হাজার ৪২টি শেয়ার ১২ হাজার ৩৬৬বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ৩৬ কোটি ৭০ লাখ ৭০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ২ কোটি ৪৪ লাখ ৮৭ হাজার ৩৩৯টি শেয়ার ১৫ হাজার ২৪৪বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ৪১ কোটি ৮৮ লাখ ২০ হাজার টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ২৯ লাখ ৬৭ হাজার ৯৪৫টি শেয়ার ৫ হাজার ৬৭৪বার হাতবদল হয়, যার বাজারমূল্য ১৫ কোিিট ৭৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসইর সার্বিক সূচক ১৪৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৬৮৩ পয়েন্টে। অন্যদিকে, সিএসইএক্স সূচক ৮৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৩০১ পয়েন্টে। আজ মোট ২৩৯টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬০টির, কমেছে ১৪৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৬ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ১ কোটি ৭ লাখ ৪৯ হাজার ৫১৭টি শেয়ার ও ইউনিট ৫ হাজার ১৯৭ বার হাতবদল হয়েছে, যার বাজারমূল্য ছিল ২৪ কোটি ৯৯ লাখ ৯৪৭ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ১০ কোটি ৩১ লাখ ২৮ হাজার ৫৪২ টাকা বেশি।
এর আগের কার্যদিবসে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) দিন শেষে সিএসইর সার্বিক সূচক ১৫১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ১৩ হাজার ৮২৮ পয়েন্টে। অন্যদিকে, সিএসইএক্স সূচক ৯৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ৮ হাজার ৩৯১ পয়েন্টে। ওইদিন মোট ২৩৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়। এর মধ্যে দর বেড়েছিল ৬০টির, কমেছিল ১৪৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৯ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৫২ লাখ ৪৭ হাজার ৪২টি শেয়ার ও ইউনিট ৫ হাজার ৫১৭ বার হাতবদল হয়েছে, যার বাজারমূল্য ছিল ১৪ কোটি ৬৭ লাখ ৭২ হাজার ৪০৫ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৪২ লাখ ১৪ হাজার ৬৯৮ টাকা বেশি।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ২৭৫ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged