বিএসআরএম-এর একীভূতকরণ : খতিয়ে দেখবে বিএসইসি

সময়: বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯ ১০:৪৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ


সালাহ উদ্দিন মাহমুদ : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ‘বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড’-এর (বিএসআরএম) একীভূতকরণ (মার্জার) তথ্য খতিয়ে দেখতে চায় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির একীভূত সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। ‘বিএসআরএম স্টিল মিল’ হলো তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির সহযোগী প্রতিষ্ঠান। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ গত ১৬ সেপ্টেম্বর বৈঠক করে এই সিদ্ধান্ত নেয়। সভায় কোম্পানি আইন, ১৯৯৪ এর ২২৮ ও ২২৯ ধারার আওতায় কোম্পানি দুটি একীভূত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে মার্জারের এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে হলে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন ও হাইকোর্টের সম্মতি প্রয়োজন হবে। আগামী ১৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় বিএসআরএম-এর এজিএমে মার্জারের ইস্যুটি শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতির জন্য উত্থাপন করা হবে।
এদিকে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, কোম্পানির এ সিদ্ধান্ত কতটুকু আইনসম্মত হয়েছে কিংবা সঠিকভাবে অ্যাসেসমেন্ট করা হয়েছে কি না Ñতা খতিয়ে দেখা হবে। সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স ১৯৬৯ এর ১১ (২) ধারা অনুযায়ী এ তথ্য চেয়েছে বিএসইসি।

বিএসইসি’র চাওয়া তথ্যের মধ্যে রয়েছে- উভয় কোম্পানির মেমোরেন্ডাম ও আর্টিকেল অব এসোসিয়েশন-এর কপি, উভয় কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন, মূল্যায়নকৃত প্রতিবেদন এবং শেয়ার হিসাব, নিরপেক্ষ মূল্যায়নের ভিত্তিতে উভয় কোম্পানির অডিটর্স রিপোর্ট, উভয় কোম্পানির মূল্যসংবেদনশীল তথ্য এবং বোর্ডসভার তথ্য, সমস্ত নিরপেক্ষ মূল্যায়ন প্রতিবেদন, উভয় কোম্পানির আগের সম্পদ মূল্যায়ন প্রতিবেদনসহ প্রাসঙ্গিক তথ্য।

বিষয়টি নিয়ে কোম্পানির প্রধান অর্থ কর্মকর্তা মোহাম্মদ রেজাউল কবির ‘দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন’-কে বলেন, ‘বিএসইসি আমাদের কাছে প্রয়োজনীয় তথ্য চেয়েছে; যা আমরা সরবরাহ করেছি। যে কোম্পানির সাথে একীভূত হচ্ছে সেটি তালিকাভুক্ত কোম্পানির সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এ কোম্পানিটি একীভূত হলে উভয় কোম্পানি লাভবান হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনীয় আইন পরিপালন করে কাজ এগিয়ে নিচ্ছি।’

‘বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেড’ একটি তালিকা-বহির্ভূত কোম্পানি। এটি বিএসআরএম-এর একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি বিলেট উৎপাদন করে থাকে। ২০১৭-১৮ সালে কোম্পানিটি ৮ লাখ ৬০ হাজার টন বিলেট উৎপাদন করেছিল। ওই বছর কোম্পানিটির নিট মুনাফা হয় ৯৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা। বিএসআরএম লিমিটেড বর্তমানে বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেডের ৪৪ দশমিক ৯৭ শতাংশ শেয়ারের মালিক। এখন বাকি ৫৫ দশমিক ০৩ শতাংশ শেয়ারও তারা অধিগ্রহণ করতে চায়। কোম্পানির শেয়ারহোল্ডারদের অনুমতি ও হাইকোর্টের সম্মতি পেলে বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেডের শেয়ারহোল্ডারদের বিপরীতে বিএসআরএমের শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে সেটি অধিগ্রহণ করবে।

এদিকে বিএসআরএম লিমিটেড ২০১৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধন ২৩৬ কোটি ৬ লাখ টাকা, শেয়ার সংখ্যা ২৩ কোটি ৬০ লাখ ৬৮ হাজার ২৩৭টি। কোম্পানিটির মোট রিজার্ভ রয়েছে ১ হাজার ৭৯ কোটি ৭৮ লাখ ১০ হাজার টাকা। স্বল্প মেয়াদে ঋণ রয়েছে ৩ হাজার ৯৭৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা। ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ সুপারিশ করে। এসময় সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয় ৭ টাকা ৮৮ পয়সা। আর সমন্বিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়ায় ৯৭ টাকা ৪৬ পয়সায়। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৪০ দশমিক ৯৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকের কাছে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে ১৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ শেয়ার, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ১৭ দশমিক ০৬ শতাংশ এবং ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৫৩৪ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged