editorial

বিদেশে পুনঃবীমা সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ

সময়: সোমবার, নভেম্বর ৪, ২০১৯ ৯:৪৭:৩৬ পূর্বাহ্ণ


প্রথমবারের মতো বিদেশে পুনঃবীমা সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন করতে যাচ্ছে ‘বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ’ (আইডিআরএ)। নীতিমালার একটি খসড়া ইতোমধ্যেই তৈরি করা হয়েছে। বীমা খাতের অর্থ বিদেশে পাচার প্রতিরোধে এটি একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।
জানা যায়, বর্তমানে কোনো নীতিমালা ছাড়াই ‘সাধারণ বীমা কর্পোরেশন’ ও বেসরকারি সাধারণ বীমা কোম্পানিগুলো পুনঃবীমা প্রিমিয়াম বাবদ প্রতি বছর দুই থেকে আড়াই হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাঠাচ্ছে। এ-সংক্রান্ত কোনো রেকর্ডও সংরক্ষণ করে না আইডিআরএ বা বাংলাদেশ ব্যাংক। এমতাবস্থায় পুনঃবীমার আড়ালে অর্থ পাচার প্রতিরোধে এ ধরনের উদ্যোগ নিচ্ছে ‘আইডিআরএ’।
খসড়া নীতিমালা অনুযায়ী, পুনঃবীমা প্রিমিয়াম বাবদ কত টাকা বিদেশে যাচ্ছে Ñএর হিসাব দিতে হবে রাষ্ট্রায়ত্ত ‘সাধারণ বীমা কর্পোরেশন’ ও বেসরকারি সাধারণ বীমা কোম্পানিগুলোকে। দেশি বা বিদেশি পুনঃবীমাকারীর নাম, পুনঃবীমার অংশ এবং তাদের সাইন্ড সিøপের কপি ‘আইডিআরএ’ বরাবর পাঠাতে হবে। সাধারণ বীমা কর্পোরেশন ও বেসরকারি বীমা কোম্পানি উভয়কেই তাদের পুনঃবীমা ব্যবসার প্রতিবেদন ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে আইডিআরএ-তে দাখিল করতে হবে। এছাড়া পুনঃবীমা প্রিমিয়াম বাবদ যে পরিমাণ অর্থই বিদেশে পাঠানো হোক না কেন, নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ থেকে এর অনুমোদন নিতে হবে। পাশাপাশি এ সংক্রান্ত রেকর্ড সংরক্ষণ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। এছাড়াও পুনঃবীমা সংক্রান্ত কাজে কোম্পানির কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণের তথ্য ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ বরাবর দাখিল করতে হবে।
এদিকে বিদেশি পুনঃবীমাকারীদের রেটিং স্ট্যাটাস কমপক্ষে ‘বি’ হতে হবে বলে ইতোমধ্যেই এ-সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে ‘আইডিআরএ’। একইসঙ্গে পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠানের ক্রেডিট রেটিং ও আর্থিক সক্ষমতা বিচার করেই দেশীয় কোম্পানিগুলোকে চুক্তিবদ্ধ হতে হবে।
বিধি অনুযায়ী নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ থেকে লাইসেন্স নিয়ে কোনো পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠান এ দেশে ব্যবসা করতে পারবে। এক্ষেত্রে তাকে ‘রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস’ (আরজেএসসি)-এর প্রক্রিয়াও অনুসরণ করতে হবে। একই সঙ্গে বিদেশি পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠানের শেষ পাঁচ বছরের ব্যবসায়িক তথ্য ও আর্থিক সক্ষমতার সনদ আইডিআরএ বরাবর জমা দিতে হবে। শুধু তাই নয়, বিদেশি পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠানের পরিচালক, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও), হিসাব রক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট সব কর্মকর্তার যাবতীয় তথ্য সংরক্ষণ করবে আইডিআরএ। এছাড়াও প্রস্তাবিত পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠান বিশ্বের আর কোন্ কোন্ দেশে ব্যবসা পরিচালনা করছে এর একটি তালিকা আইডিআরএ-তে দিতে হবে বিদেশি পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন নিয়ে এদেশে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করতে পারবে। এছাড়া তাদের বাংলাদেশ শাখার ব্যবসায়িক তথ্য ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে আইডিআরএ-তে জমা দিতে হবে। এছাড়া বীমা দাবি পরিশোধে যে কোনো ধরনের সমস্যা তৈরি হলে পুনঃবীমাকারী প্রতিষ্ঠান ও বীমা কোম্পানি উভয়কেই নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ বরাবর তা লিখিতভাবে জানাতে হবে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে।

Share
নিউজটি ৪১৪ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged