শেয়ারবাজারে আসছে সরকারি সাত কোম্পানি

সময়: রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২, ২০২০ ৯:০৫:৪৬ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : শেয়ারবাজারের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ দরকার। বাজারে যারা আছে তারা বিক্ষিপ্তভাবে আছে। তাই সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে শেয়ারবাজারে আসতে হবে। সরকারি সাতটি প্রতিষ্ঠানকে ধরা হয়েছে। এ সাতটি প্রতিষ্ঠানকে শিগগিরই বাজারে আনা হবে।
আজ রোববার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল তাঁর দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানগুলোকে দু’ মাস সময় দেয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সম্পদের পরিমাণ যাচাই করে জানাবেন। বাজার চাঙ্গা করতে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (টিজিটিডিসিএল), পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ, নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি, ইলেকট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (ইজিসিবি), আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি লিমিটেড, বি-আর পাওয়ারজেন লিমিডেট (বিআরপিএল) এবং গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেডকে (জিটিসিএল) শেয়ারবাজারে আনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
কত দিনের মধ্যে এসব কোম্পনি শেয়ারবাজারে আসবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওভারনাইট তো তাদের আনা যাবে না, একটু সময় লাগবে। তবে আমাদের শেয়ারবাজার শক্তিশালী করতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ দরকার। আমাদের শেয়ারবাজারে যারা আছে তারা নিজস্বভাবে আছে। উন্নত দেশের মতো আমাদের দেশের বাজারও ব্রডবেইজড করতে হবে। এ জন্য আমাদের সরকারি প্রাতিষ্ঠানিকগুলোকে শেয়ারবাজারে আনতে হবে। আমি আগেও বলেছিলাম বাজারকে শক্তিশালী করার জন্য সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে বাজারে নিয়ে আসা উচিৎ। শক্তিশালী ও স্থিতিশীল শেয়ারবাজারের জন্য আজ এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সাতটি কোম্পানিরই ব্যালেন্সশিট করতে হবে।
তিনি বলেন, কোম্পানিগুলোর অ্যাসেট রিভ্যালুয়েশন করার জন্য দু’ মাস সময় দেয়া হয়েছে। এর ভিত্তিতেই শেয়ারগুলোর ভ্যালুয়েশন করা হবে। এরপর এসব কোম্পানির ১০ থেকে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শেয়ার প্রাথমিকভাবে বাজারে নিয়ে আসব। আগমী দুই মাসের মধ্যে তারা আমাদের অ্যাসেসমেন্ট করে রিপোর্ট দেবে। আমরা তাড়াতাড়ি কোম্পানিগুলোকে শেয়ারবাজারে আনতে চাই, তাই সাতটি ফার্ম দিয়ে অ্যাসেসমেন্টের কাজটা দ্রুত শেষ করতে চাই।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪৪৭ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged