সপ্তাহজুড়ে ১৩ বীমা কোম্পানির আর্থিক প্রতিদেবন প্রকাশ

সময়: শনিবার, জুলাই ২৭, ২০১৯ ৯:২২:০১ পূর্বাহ্ণ


সপ্তাহজুড়ে আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৩ বীমা কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো-সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, ডেলটা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স, রূপালি ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স ও গ্রীণ ডেলটা ইন্স্যুরেন্স।
ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৯৬ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৯২ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৩৯ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৪০ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৬৯ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৭ টাকা ৭৩ পয়সা।

তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ৭১ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২৫ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ২৬ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ১৩ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৬ টাকা ৫ পয়সা।

মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড কমেছে ৪০ কোটি ৩০ লাখ ২০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৪৬ কোটি ৪৩ লাখ ১০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড কমেছিল ৩৫ কোটি ১২ লাখ ৩০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ১ হাজার ৫২৮ কোটি ৩৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ২৯ কোটি ৯৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৭১৬ কোটি ৭৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ৪০ কোটি ৩৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ১ হাজার ৬০৩ কোটি ৭৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা

প্রাইম ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ৬ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২০ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে লোকসান হয়েছিল ২৯ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৫২ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৫ টাকা ৮৩ পয়সা।

মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৮০ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১ টাকা ১ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৮ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৩৩ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা ৬ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের ৩১ ডিসেম্বও পর্যন্ত সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৭ টাকা ৯৩ পয়সা।

প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৮৭ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৩৫ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৫২ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ২০ পয়সা।
২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৩ টাকা ৬৯ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১২ টাকা ৭১ পয়সা।

ডেলটা লাইফ ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ৪৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৮৭৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ১১ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ৩ হাজার ৬৫১ কোটি ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা।
২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ৪৯ কোটি ১১ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৮৭৮ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। গতআর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ২২ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ৩ হাজার ৬৫১ কোটি ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা।

প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ৫ কোটি ৫৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ৫৬৫ কোটি ৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ১০ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ৫৪৩ কোটি ৭৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ১০ কোটি ১৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ৫৬৫ কোটি ৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ২২ কোটি ১৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ৫৪৩ কোটি ৭৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা।

ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৯৮ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৯২ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৪৮ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৪৮ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসে (জানুয়ারী-জুন) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকা ও শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (এনএভি) ২১ টাকা ১৩ পয়সা।

রূপালি ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ১ টাকা ২৯ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১ টাকা ২৭ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৮৩ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৬৭ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসে (জানুয়ারী-জুন) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ৯৬ টাকা ও শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (এনএভি) ২২ টাকা ৮৭ পয়সা।

ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ১ টাকা ৩৩ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৮৪ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ১ টাকা ১৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৪২ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসে (জানুয়ারী-জুন) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ০.০১ টাকা ও ৩০ জুন পর্যন্ত শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (এনএভি) ৩২ টাকা ৫৯ পয়সা।
ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৩৭ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ২৯ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ২৩ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১৯ পয়সা। ৩০ ৩০ ২০১৯ পর্যন্ত শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (এনএভি) ১১ টাকা ৩০ পয়সা।

গ্রীণ ডেলটা ইন্স্যুরেন্স: ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ১ টাকা ২৮ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ১ টাকা ৪৭ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ৪৬ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে যার পরিমাণ ছিল ৭৭ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসে (জানুয়ারী-জুন) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ৫২ পয়সা ও ৩০ জুন পর্যন্ত শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে (এনএভি) ৭৬ টাকা ৩৯ পয়সা।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/রী

Share
নিউজটি ৩৩০ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged