সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

সপ্তাহশেষে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন

সময়: বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯ ৬:১১:০১ অপরাহ্ণ


মো. সাজিদ খান : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন। একই সঙ্গে বেড়েছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর ও বাজারমূলধন। এদিন ডিএসই’তে দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২২ কোটি ৫ লাখ ৩২ হাজার টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৮.৮৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৪৪৫৬.৮৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ১১.০০ পয়েন্ট বেড়ে ৯৯৭.৪৮ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ১৪.৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ১৫১৩.৪৭ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২০৬টির, কমেছে ৯১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৪টির দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১০ কোটি ৭৬ লাখ ১৩ হাজার ১১৮টি শেয়ার এক লাখ ১ হাজার ১১৮ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭৬ কোটি ৪৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৭৩ টাকা ৩০ পয়সা। আজ বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৬০৪ কোটি ৫৯ লাখ ৯০ হাজার ৮৫২ টাকা ২৯ পয়সা।
এর আগের কার্যদিবসে ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স ১.৮৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪৪১৭.৯৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ৮.৩০ পয়েন্ট কমে ৯৮৬.৪৭ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ৯.৫৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৪৯৮.৬৯ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২০৩টির, কমেছে ৯৪টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৬টির দর। ওইদিন ডিএসই’তে মোট ৯ কোটি ৭০ লাখ ৬৮ হাজার ৭৭৫টি শেয়ার ৯৬ হাজার ৪৬৯ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৫৪ কোটি ৩৮ লাখ ৩৩ হাজার ৫০৮ টাকা ১০ পয়সা। ওইদিন বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৩৬৮ কোটি ৬২ লাখ ৫৯ হাজার ১৭৭ টাকা ৪৭ পয়সা।
ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৮টি, কমেছে ৬৩টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৬টির দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৫টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৪টি এবং কমেছে ১১টি। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৫টি এবং কমেছে ৫টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৯টি, কমেছে ১২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৮টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ৮টির, কমেছে ৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৩টির দর।
এর আগের কার্যদিবসে ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৪টি, কমেছে ৭৬টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪০টির দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৪টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৩১টি, কমে ২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৭টি, কমেছে ২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির শেয়ার দর। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২১টি, কমেছে ১৪টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৪টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ১২টির, কমেছে ৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৭টির দর।
আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭ কোম্পানির মোট ৭ কোটি ১৭ লাখ ২৯ হাজার ৩২৩টি শেয়ার ৭২ হাজার ৭৪১ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯৬ কোটি ৬৮ লাখ ১৯ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৪ কোম্পানির এক কোটি ৬৫ লাখ ৮৪ হাজার ১২৭টি শেয়ার ১৪ হাজার ৭১৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৮ কোটি ৪০ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির ১ কোটি ২৭ লাখ ৫২ হাজার ৮৯৮টি শেয়ার ৮ হাজার ৪৮০ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৮ কোটি ৮০ লাখ ২৬ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯ কোম্পানির ৫১ লাখ ৩০ হাজার ৩৪টি শেয়ার ৫ হাজার ১৫৮ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৭ কোটি ৮৯ লাখ ২২ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৬১ লাখ ৪৬ হাজার ৯৯টি ইউনিট ২ হাজার ৩৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪ কোটি ৮৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৬০ কোম্পানির মোট ৬ কোটি ৬৯ লাখ ৬ হাজার ৪৬৬টি শেয়ার ৬৫ হাজার ৭৬১ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৭৮ কোটি ২১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৪ কোম্পানির এক কোটি ৩১ লাখ ১৫ হাজার ২৪১টি শেয়ার ১৪ হাজার ৮২৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৮ কোটি ৪৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির ১ কোটি ৩৬ লাখ ৩৮ হাজার ১৭১টি শেয়ার ১১ হাজার ৫৩৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৮ কোটি ৫ লাখ ৭৪ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯ কোম্পানির ৩২ লাখ ৬ হাজার ৬০৬টি শেয়ার ৪ হাজার ২৯৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪ কোটি ৬২ লাখ ১ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৮৯ লাখ ৯৬ হাজার ২৪৮টি ইউনিট ২ হাজার ৬৩২ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৬ কোটি ২১ লাখ ৭০ হাজার টাকা।
প্রধান খাতগুলোর মধ্যে আজ ব্যাংক খাতে এক কোটি ২৬ লাখ ৩২ হাজার ৫৭টি শেয়ার ৪ হাজার ৫৯২বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৮ কোটি ৫ লাখ টাকা। বীমা খাতে ১ কোটি ৮৬ লাখ ২০ হাজার ৩০৫টি শেয়ার ১৯ হাজার ৫২৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৬০ কোটি ৭৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৮৬ লাখ ৫১ হাজার ১৮৪টি শেয়ার ৩ হাজার ৩৮৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। প্রকৌশল খাতে ৭০ লাখ ৩১ হাজার ৮৭১টি শেয়ার ১২ হাজার ৬২৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৬ কোটি ১৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৮৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯৮৪টি শেয়ার ৯ হাজার ৬৪৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭ কোটি ৮৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ২ কোটি ৩৯ লাখ ৪০ হাজার ১৯৬টি শেয়ার ১৭ হাজার ১৯৮বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৪০ লাখ ৭৩ হাজার ৭৫৯টি শেয়ার ৬ হাজার ৯৫৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯ কোটি ৫৬লাখ ২০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে ব্যাংক খাতে এক কোটি ২৬ লাখ ৮৭ হাজার ৯২৭টি শেয়ার ৪ হাজার ৬০৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৭ কোটি ৭৭ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বীমা খাতে ১ কোটি ৮৯ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪৬টি শেয়ার ১৬ হাজার ৪৫৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৫২ কোটি ৯১ লাখ ৪০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৬০ লাখ ১৫ হাজার ১২২টি শেয়ার ৩ হাজার ৩৮৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। প্রকৌশল খাতে ৮২ লাখ ৭৭ হাজার ৪০২টি শেয়ার ১৪ হাজার ৩৬৮বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৯ কোটি ৫২ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৬৬ লাখ ৪৪ হাজার ৬০৪টি শেয়ার ১১ হাজার ৪২৬বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৫ কোটি ৫৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ২ কোটি ১৪ লাখ ৭৪ হাজার ৪১৯টি শেয়ার ১৮ হাজার ৩৭৬বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩২ কোটি ৪৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ১৮ লাখ ১২ হাজার ৪৮৩টি শেয়ার ৩ হাজার ৯৭৮বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৯ কোটি ৯২ লাখ ১০ হাজার টাকা।

অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসই’র সার্বিক সূচক ১ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৩ হাজার ৪৪০ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ০.০৮০২ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৮ হাজার ১৫১ পয়েন্টে। আজ মোট ২৩০টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৯টির, কমেছে ৭৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৪ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬৫ লাখ ৮১ হাজার ৩৫৩টি শেয়ার ও ইউনিট ৬ হাজার ৪৯ বার হাতবদল হয়েছে,যাদের মোট মূল্য ছিল ১২ কোটি ৩৬ লাখ ৬৩ হাজার ৩৫৪ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ২ কোটি ২৬ লাখ ৬৩ হাজার ৬২৭ টাকা কম। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৭ হাজার ৯০ কোটি ৮০ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবসে সিএসইতে সার্বিক সূচক ২৩১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ১৩ হাজার ৪৪১ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ১৪৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ৮ হাজার ১৫১ পয়েন্টে। মোট ২৩০টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এর মধ্যে দর বেড়েছিল ৩৫টির, কমেছিল ১৭৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২২ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৭৩ লাখ ৯৩ হাজার ২০২টি শেয়ার ও ইউনিট ১০ হাজার ৫৮৯ বার হাতবদল হয়েছিল, মোট মূল্য ছিল ১৪ কোটি ৬৩ লাখ ২৬ হাজার ৯৮১ টাকা। এর আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৫ কোটি ৭ লাখ ১ হাজার ১০৩ টাকা বেশি। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৬ হাজার ৪৭০ কোটি ৩২ লাখ ৭০ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসই’র সার্বিক সূচক ৯০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ১৩ হাজার ৫৩১ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৮ হাজার ২০৬ পয়েন্টে। আজ মোট ২৩৮টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩১টির, কমেছে ৭৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৪ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬৩ লাখ ২৪ হাজার ৫৭৫টি শেয়ার ও ইউনিট ৬ হাজার ৯৭ বার হাতবদল হয়েছে, মোট মূল্য ছিল ১৯ কোটি ১১ লাখ ৩৩ হাজার ১৩৭ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৬ কোটি ৭৪ লাখ ৬৯ হাজার ৭৮৩ টাকা বেশি। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৮ হাজার ৫৭৭ কোটি ২০ লাখ ৯০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে সিএসইতে সার্বিক সূচক ১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ১৩ হাজার ৪৪০ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ০.০৮০২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছিল ৮ হাজার ১৫১ পয়েন্টে। মোট ২৩০টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এর মধ্যে দর বেড়েছিল ১১৯টির, কমেছিল ৭৭টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৪ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬৫ লাখ ৮১ হাজার ৩৫৩টি শেয়ার ও ইউনিট ৬ হাজার ৪৯ বার হাতবদল হয়েছিল, মোট মূল্য ছিল ১২ কোটি ৩৬ লাখ ৬৩ হাজার ৩৫৮ টাকা। এর আগের কার্যদিবসের তুলনায় ২ কোটি ২৬ লাখ ৬৩ হাজার ৬২৭ টাকা কম। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৭ হাজার ৯০ কোটি ৮০ হাজার টাকা।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged