editorial

সরকারিভাবে অ্যাকচুয়ারি তৈরির উদ্যোগকে স্বাগত জানাই

সময়: বুধবার, জানুয়ারি ১৫, ২০২০ ১২:২৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ


স্থানীয়ভাবে অ্যাকচুয়ারি সেবাদানকারীর সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি অথরিটি (আইডিআরএ) খুব সহসাই উদ্যোগ গ্রহণ করবে বলে জানা গেছে। বিলম্বে হলেও এ ধরনের একটি উদ্যোগ গ্রহণ করায় কর্তৃপক্ষকে আমরা অভিনন্দন জানাই। দেশে প্রচুর সংখ্যক বীমা কোম্পানি থাকা সত্ত্বেও এতদিন স্থানীয়ভাবে প্রয়োজন অনুযায়ী অ্যাকচুয়ারি তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়নি। একজন অ্যাকচুয়ারি বীমা কোম্পানির সম্পদ ও দায় নিরূপনের পাশাপাশি জীবন বীমা ও সাধারণ বীমা কোম্পানির জন্য পলিসি ডিজাইন করে থাকেন। কাজেই বীমা কোম্পানির স্বচ্ছতা নিশ্চিতকরণের ক্ষেত্রে অ্যাকচুয়ারিগণ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন। কিন্তু দেশে প্রয়োজনীয় সংখ্যক অ্যাকচুয়ারি না থাকার কারণে বীমা কোম্পানিগুলোর সম্পদ ও দায় নিরূপনের ক্ষেত্রে নানা ধরনের সমস্যা হচ্ছে। এই সমস্যা দূরীকরণের জন্যই মূলত এ ধরনের একটি উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দেশে বীমা কোম্পানির সংখ্যা বর্তমানে ৩২টি হলেও তাদের সম্পদ ও দায় নিরূপনের জন্য দেশে অনুমোদনপ্রাপ্ত কোনো অ্যাকচুয়ারি নেই। নিয়ন্ত্রক সংস্থার থেকে অনুমোদনপ্রাপ্ত একজন অ্যাসোসিয়েট অ্যাকচুয়ারি দিয়ে কাজ চালাচ্ছে বীমা কোম্পানিগুলো। এছাড়া দেশে আরও দুজন পূর্নাঙ্গ অ্যাকচুয়ারি থাকলেও তারা এ কাজের জন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে অনুমোদন প্রাপ্ত নন। এই অবস্থায় বিদেশী বেশ কিছু কোম্পানি অ্যাকচুয়ারিয়াল সেবা দেবার জন্য দেশের বীমা খাত সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছে। কিন্তু বিদেশি অ্যাকচুয়ারিদের এই তৎপরতা ভালো চোখে দেখছে না ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি অথরিটি। তারা মনে করছেন, উদ্যোগ নিলে স্থানীয়ভাবেই অ্যাকচুয়ারি তৈরি করা সম্ভব। এতে দেশের বীমা কোম্পানিগুলোকে সেবাদানের ক্ষেত্রে যেমন সুবিধা হবে তেমনি এই খাতে বিদেশীদের জন্য অর্থ ব্যয় করতে হবে না। তারা এ জন্য দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন। সূত্র মতে, দেশের এক একটি বীমা কোম্পানির ভ্যালুয়েশনের জন্য একজন অ্যাকচুয়ারি ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা পেয়ে থাকেন। ক্ষেত্র বিশেষে এই অর্থের পরিমাণ আরো বেশিও হয়ে থাকে।
দেশের অর্থনীতিতে বীমা খাতের অবদান কোনোভাবেই অস্বীকার করা যাবে না। এই অবস্থায় ইন্স্যুরেন্স ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি অথরিটি স্থানীয়ভাবে অ্যাকচুয়ারি তৈরির জন্য যে দীর্ঘ মেয়াদি নিতে যাচ্ছে তা অত্যন্ত সময়োপযোগি একটি পদক্ষেপ। আমরা এই পদক্ষেপের সফলতা কামনা করি।

Share
নিউজটি ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged