সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

সূচকের পতন দিয়ে সপ্তাহ শুরু

সময়: রবিবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৯ ৭:৫৫:৪২ অপরাহ্ণ


মো. সাজিদ খান : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে সূচকের পতন হয়েছে। এদিন লেনদেনের পাশাপাশি কমেছে বাজারমূলধন। এছাড়া কমেছে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। এদিন ডিএসই’তে দিন শেষে লেনদেন কমেছে ৫ কোটি ৩৭ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২৫.৮৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪৪৩০.৯৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ১০.২৮ পয়েন্ট কমে ৯৮৭.১৯ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ১১.৮৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৫০১.৬০ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৩টির, কমেছে ২০৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৭টির দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১০ কোটি ২৯ লাখ ৯০ হাজার ৩৭১টি শেয়ার এক লাখ ৩ হাজার ৭০৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭১ কোটি ৬ লাখ ২২ হাজার ৬২১ টাকা ৪০ পয়সা। আজ বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৯৮২ কোটি ৯৬ লাখ ৩৯ হাজার ৭৩৭ টাকা ২ পয়সা।
এর আগের কার্যদিবসে ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স ৩৮.৮৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ৪৪৫৬.৮৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ১১.০০ পয়েন্ট বেড়ে ৯৯৭.৪৮ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ১৪.৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় ১৫১৩.৪৭ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২০৬টির, কমেছে ৯১টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৫৪টির দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১০ কোটি ৭৬ লাখ ১৩ হাজার ১১৮টি শেয়ার এক লাখ ১ হাজার ১১৮ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭৬ কোটি ৪৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৭৩ টাকা ৩০ পয়সা। ওইদিন বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৬০৪ কোটি ৫৯ লাখ ৯০ হাজার ৮৫২ টাকা ২৯ পয়সা।
ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৬৭টি, কমেছে ১৫৫টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৫টির দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৬টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৮টি, কমেছে ২৬টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২টির। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৫টি এবং কমেছে ৫টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৩টি, কমেছে ১৭টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১০টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ৭টির, কমেছে ১৪টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৬টির দর।
এর আগের কার্যদিবসে ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৮টি, কমেছে ৬৩টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৬টির দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৫টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৪টি এবং কমেছে ১১টি। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৫টি এবং কমেছে ৫টির। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৫টি এবং কমেছে ৫টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২৯টি, কমেছে ১২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৮টির। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে ৮টির, কমেছে ৬টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৩টির দর।
আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭ কোম্পানির মোট ৬ কোটি ৯২ লাখ ৫০ হাজার ৩০৭টি শেয়ার ৭২ হাজার ৭৩৪ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯২ কোটি ৪ লাখ ৪ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৫ কোম্পানির এক কোটি ২৭ লাখ ১৭ হাজার ২৫টি শেয়ার ১৩ হাজার ৪৫২বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩২ কোটি ৯৮ লাখ ১৮ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির ১ কোটি ৫০ লাখ ৭ হাজার ৪৪৬টি শেয়ার ১২ হাজার ৬১ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৮ কোটি ৯২ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৫০ কোম্পানির ৪৮ লাখ ৬৫ হাজার ৭৪৩টি শেয়ার ৫ হাজার ৪২৩ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৯ কোটি ১০ লাখ ৭৮ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৬৯ লাখ ৯৪ হাজার ৭৯৬টি ইউনিট ২ হাজার ৩৪৯ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৫ কোটি ৬১ লাখ ১০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭ কোম্পানির মোট ৭ কোটি ১৭ লাখ ২৯ হাজার ৩২৩টি শেয়ার ৭২ হাজার ৭৪১ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯৬ কোটি ৬৮ লাখ ১৯ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৩৪ কোম্পানির এক কোটি ৬৫ লাখ ৮৪ হাজার ১২৭টি শেয়ার ১৪ হাজার ৭১৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৮ কোটি ৪০ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ১০ কোম্পানির ১ কোটি ২৭ লাখ ৫২ হাজার ৮৯৮টি শেয়ার ৮ হাজার ৪৮০ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৮ কোটি ৮০ লাখ ২৬ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৯ কোম্পানির ৫১ লাখ ৩০ হাজার ৩৪টি শেয়ার ৫ হাজার ১৫৮ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৭ কোটি ৮৯ লাখ ২২ হাজার টাকা। এছাড়া ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৬১ লাখ ৪৬ হাজার ৯৯টি ইউনিট ২ হাজার ৩৭ বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪ কোটি ৮৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

প্রধান খাতগুলোর মধ্যে আজ ব্যাংক খাতে ৭৯ লাখ ৫৯ হাজার ৭৩২টি শেয়ার ৩ হাজার ৪৯৫বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। বীমা খাতে ১ কোটি ৪৯ লাখ ৭৮ হাজার ৪১২টি শেয়ার ১৭ হাজার ৯৪৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৫০ কোটি ৭৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৪৯ লাখ ৬৯ হাজার ১৬৯টি শেয়ার ২ হাজার ৭৫৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৮ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার টাকা। প্রকৌশল খাতে এক কোটি ৫ লাখ ৪১ হাজার ৫২৩টি শেয়ার ১৫ হাজার ৫৯৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৪ কোটি ৮১ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৮৯ লাখ ৪২ হাজার ৫৮২টি শেয়ার ১১ হাজার ৫৪৪বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩০ কোটি ৮৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ২ কোটি ৮২ লাখ ৩৬ হাজার ৯০৫টি শেয়ার ১৮ হাজার ৭৬৬বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৪২ কোটি ৩৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৩৮ লাখ ৫৭ হাজার ৯৯টি শেয়ার ৬ হাজার ৬৮৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৮ কোটি ৪৭ লাখ ৩০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে ব্যাংক খাতে এক কোটি ২৬ লাখ ৩২ হাজার ৫৭টি শেয়ার ৪ হাজার ৫৯২বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৮ কোটি ৫ লাখ টাকা। বীমা খাতে ১ কোটি ৮৬ লাখ ২০ হাজার ৩০৫টি শেয়ার ১৯ হাজার ৫২৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৬০ কোটি ৭৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর্থিক খাতে ৮৬ লাখ ৫১ হাজার ১৮৪টি শেয়ার ৩ হাজার ৩৮৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। প্রকৌশল খাতে ৭০ লাখ ৩১ হাজার ৮৭১টি শেয়ার ১২ হাজার ৬২৩বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৬ কোটি ১৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা। ওষুধ ও রসায়ন খাতে ৮৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯৮৪টি শেয়ার ৯ হাজার ৬৪৭বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ২৭ কোটি ৮৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। বস্ত্র খাতে ২ কোটি ৩৯ লাখ ৪০ হাজার ১৯৬টি শেয়ার ১৭ হাজার ১৯৮বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ৩৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে ৪০ লাখ ৭৩ হাজার ৭৫৯টি শেয়ার ৬ হাজার ৯৫৯বার হাতবদল হয়, যার মোট মূল্য ১৯ কোটি ৫৬লাখ ২০ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসই’র সার্বিক সূচক ৫১ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৩ হাজার ৪৮০ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৩৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৮ হাজার ১৭২ পয়েন্টে। আজ মোট ২২১টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৯টির, কমেছে ২১২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩১ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৫১ লাখ ৪৮ হাজার ৩৩৪টি শেয়ার ও ইউনিট ৫ হাজার ৯০১ বার হাতবদল হয়েছে, মোট মূল্য ছিল ১০ কোটি ১ লাখ ৩৪ হাজার ৫৪৩ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৯ কোটি ৯৮ হাজার ৫৯৪ টাকা কম। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৬ হাজার ৫৬২ কোটি ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবসে সিএসইতে সার্বিক সূচক ৯০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ১৩ হাজার ৫৩১ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ৮ হাজার ২০৬ পয়েন্টে। মোট ২৩৮টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এর মধ্যে দর বেড়েছিল ১৩১টির, কমেছিল ৭৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৪ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬৩ লাখ ২৪ হাজার ৫৭৫টি শেয়ার ও ইউনিট ৬ হাজার ৯৭ বার হাতবদল হয়েছিল, মোট মূল্য ছিল ১৯ কোটি ১১ লাখ ৩৩ হাজার ১৩৭ টাকা। এর আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৬ কোটি ৭৪ লাখ ৬৯ হাজার ৭৮৩ টাকা বেশি। বাজার মূলধন ছিল ২ লাখ ৬৮ হাজার ৫৭৭ কোটি ২০ লাখ ৯০ হাজার টাকা।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/কান

Share
নিউজটি ৪৩২ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged