সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

সূচকের পাশাপাশি কমেছে লেনদেন

সময়: সোমবার, আগস্ট ২৬, ২০১৯ ১২:৫৩:৪৮ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। একই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। আজ লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি ৭৬.২৪ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার দর কমেছে। আজ ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪৭ কোটি ১৬ লাখ ১৪ হাজার টাকা।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫১৬৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১৯৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ২২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮১৯ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৫৫টির, কমেছে ২৭৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ৪৪৭ কোটি ১৬ লাখ ১৪ হাজার টাকা।
এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫২২৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১২০৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৮৪১ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৪৬৮ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ২১ কোটি ৮২ লাখ ৮৬ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, এদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সূচক পতনের মধ্যে দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। পাশপাশি কমেছে বিভিন্ন কোম্পানির শেয়ারদর। তবে মোট লেনদেন গত রোববারের তুলনায় বেড়ে ১০০ কোটির ঘর অতিক্রম করেছে। তালিকাভুক্ত বৃটিশ আমেরিকান টোবাকোর ৮৭ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।
সূচকের চিত্রে দেখা গেছে লেনদেনের শুরু থেকে সূচকের তীর ছিল নিচের দিকে। দিনভর একই অবস্থায় ছিল সূচক। ফলে দিনশেষে সিএসইর সার্বিক সূচক ১৭৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৫ হাজার ৮০১ পয়েন্টে। অন্যদিকে সিএসইএক্স সূচক ১০৩ পয়েন্ট কমে ৯ হাজার ৫৯৪ পয়েন্টে নেমে আসে।
এদিকে আজ মোট ২৪৭টি কোম্পানির লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৩৭টির কমেছে ১৮৪ টির আর অপরিবর্তিত ছিল ২৬ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৯৯ লাখ ৪০ হাজার ৯৭৯টি শেয়ার ৮ হাজার ৩৪ বার হাত বদল হয়। টাকার অঙ্কে মোট মূল্য ছিল ১১২ কোটি ৩ লাখ ১২ হাজার ৫৫৯ টাকা। আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৮৮ কোটি ৮৮ লাখ ১ হাজার ৭১৯ টাকা বেশি। আগের কার্যদিবসে মোট লেনদেন হয়েছিল ৪৩ কোটি ১৫ লাখ ১০ হাজার ৮৪০ টাকা। টপটেন গেইনারের ১০ কোম্পানির মধ্যে শীর্ষে ছিল আরামিট সিমেন্ট। এ কোম্পানির দর বেড়েছে ৯ দশমিক ৭৫ শতাংশ। অন্যদিকে দর হারানোর দিক থেকে শীর্ষে ছিল এসইএমএল এফবিএসএল গ্রোথ ফান্ড। এ ইউনিটের দর কমেছে ১০ শতাংশ।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ২৭৮ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged