১২ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন জমার সময়সীমা বাড়িয়েছে বিএসইসি

সময়: মঙ্গলবার, জুলাই ৩০, ২০১৯ ৪:৪৪:২২ পূর্বাহ্ণ


সালাহ উদ্দিন মাহমুদ : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১২টি কোম্পানির নিরীক্ষিত ও অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন জমা দেয়ার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আর্থিক প্রতিবেদন জমা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় কোম্পানিগুলোর আবেদনের প্রেক্ষিতে সময়সীমা বাড়িয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন’ (বিএসইসি)। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

যে ১২টি কোম্পানির সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে সেগুলো হচ্ছেÑ ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স, সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, পদ্মা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, ফার্স্ট ফাইন্যান্স, পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট ও মাইডাস ফাইন্যান্সিং লিমিটেড।

সূত্রমতে, কোম্পানিগুলো গত ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, গত ৩১ মার্চ ২০১৯ সমাপ্ত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন এবং গত ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত দ্বিতীয় প্রান্তিকের অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন দাখিলের সময় বৃদ্ধির আবেদন করেছিল। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে কমিশন, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স, সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ৩১ মার্চ ২০১৯ সমাপ্ত প্রথম প্রান্তিকের অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রদানের জন্য ৩১ জুলাই পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়েছে। আর পদ্মা লাইফ ইন্স্যুরেন্সকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ৩১ মার্চ ২০১৯ সমাপ্ত প্রথম প্রান্তিক এবং ৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত দ্বিতীয় প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রদানের জন্য ৩১ জুলাই পর্যন্ত সময় দেয়া হয়।

এদিকে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, ফার্স্ট ফাইন্যান্স, পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস এবং ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ৩১ মার্চ ২০১৯ সমাপ্ত প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রদানের জন্য ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দেয়া হয়। আর মাইডাস ফাইন্যান্সিং লিমিটেডের একই সময়ে প্রতিবেদনের জন্য ২৬ মে ২০১৯ পর্যন্ত সময় দেয়া হয়। বলা হয়, কোম্পানিগুলোর ব্যাপারে বিএসইসির সংশ্লিষ্ট বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
লিস্টিং রেগুলেশন অনুযায়ী, মিউচ্যুয়াল ফান্ড বাদে তালিকাভুক্ত কোম্পানির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রস্তুতের জন্য কোম্পানি ১২০ দিন বা ৪ মাস সময় পাবে। আর নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন স্টক এক্সচেঞ্জ এবং কমিশনে ১৪ দিনের মধ্যে জমা দিতে হবে। এছাড়া প্রস্তুতকৃত নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা প্রদানে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিকে স্টক এক্সচেঞ্জকে প্রতিদিন ৫ হাজার টাকা জরিমানা হিসাবে দিতে হবে।
উল্লেখ্য, কোম্পানিগুলোর মধ্যে ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদের সভা আগামী ৫ আগস্ট বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। আর সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স ও রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদের আর্থিক প্রতিবেদন সংক্রান্ত ৩টি সভা আজ বিকেলে অনুষ্ঠিত হবে। সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স ও ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদের আর্থিক প্রতিবেদন সংক্রান্ত ৩টি সভা গতকাল সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদের আর্থিক প্রতিবেদন সংক্রান্ত সভা গত ২৩ জুলাই সম্পন্ন হয়েছে। এতে সমাপ্ত বছরে কোম্পানিটি ২০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করে। এ সময়ে কোম্পানিটির সমন্বিত আয় হয় ৫৩ পয়সা। আর সমন্বিত শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয় ১৩ টাকা ৩৬ পয়সা। ফার্স্ট ফাইন্যান্স পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি। এসময়ে কোম্পানিটির লোকসান হয় ৩ টাকা ৪৯ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয় ৭ টাকা ৩৯ পয়সা।
পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি। এসময়ে কোম্পানিটির লোকসান হয় ২ টাকা ৭ পয়সা। ফারইস্ট ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করেনি। এসময়ে কোম্পানিটির আয় হয় ৮১ পয়সা। আর শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয় ৭ টাকা ২২ পয়সা। মাইডাস ফাইন্যান্সিং লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ সমাপ্ত হিসাব বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য আড়াই শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করে। এসময়ে কোম্পানিটির সমন্বিত আয় হয় ৯ পয়সা। আর সমন্বিত শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয় ১০ টাকা ৮৯ পয়সা।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪৯৩ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged