নিরাপত্তায় নয়া উদ্যোগ

ক্ষুদে বার্তায় মিলবে বিও হিসাবের নানা তথ্য

সময়: বুধবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯ ৯:৫২:০৩ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সুরক্ষায় নতুন উদ্যোগ নিয়েছে সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল)। বিনিয়োগকারীরা এখন থেকে ক্ষুদে বার্তায় পাবেন তাদের বেনিফিশিয়ারি ওনার্স অ্যাকাউন্ট বা বিও হিসাবের নানা তথ্য। বিনিয়োগকারীদের সুবিধার্থে গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৭১০তম কমিশন সভায় সিডিবিএল’র এই প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে।
কমিশনের অনুমোদনের ফলে বেশ কিছু তথ্য সেবা বিনিয়োগকারীরা তাদের মোবাইলের ক্ষুদে বার্তা পাবেন। এর মধ্যে রয়েছে- লেনদেনের তথ্যের পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাব খোলা, বিও হিসাবে লিংক অ্যাকাউন্ট খোলা, বিনিয়োগকারীর নাম পরিবর্তন, ব্যাংক হিসাব পরিবর্তন, ব্যাংকের নাম পরিবর্তন, মোবাইল নম্বর পরিবর্তন হলে নতুন পুরাতন দু’টোতেই বার্তা পাওয়া যাবে, বিও হিসাব বন্ধ এবং মার্জিন বিও থেকে নন-মার্জিন বা নন-মার্জিন থেকে মার্জিন বিও’তে রূপান্তরের তথ্য ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পাবেন। এসব সেবা শিগগিরই চালু হবে এবং সেবা গ্রহণের জন্য বিনিয়োগকারীদের কোনো ফি দিতে হবে না। এছাড়া বিও হিসাবের সিকিউরিটিজ ডেবিট ও ক্রেডিটসংক্রান্ত যে সেবা বিদ্যমান আছে তা অব্যাহত থাকবে।
তথ্যপ্রযুক্তির যুগে বিনিয়োগকারীদের নতুন সেবা চালু করার উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবদুর রাজ্জাক ‘দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন’কে বলেন- বিনিয়োগকারীদের নিরাপত্তায় সিডিবিএল একটি ভালো উদ্যোগ নিয়েছে, স্বাগত জানাই। তথ্য সেবার বিষয়টি বিএসইসি’র অনুমোদনের মাধ্যমে শিগগিরই চালু হবে। ফলে বিনিয়োগকারীদের লেনদেনে স্বচ্ছতা নিশ্চিত হবে।
নতুন ক্ষুদে বার্তা সেবাটি চালু হলে বিও হিসাবসংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ সব বিষয়ে হিসাবধারীরা জানতে পারবেন। তবে এ সেবা পাওয়ার জন্য বিও হিসাবে সঠিক মোবাইল নাম্বার দিতে হবে।
বর্তমানে বহুজাতিক কোম্পানি প্রচলিত পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করে বিনিয়োগকারীদের হিসেবে নগদ লভ্যাংশ পাঠায়। তাই সঠিক ব্যাংক হিসাব নম্বর এবং বিও হিসাবে থাকা জরুরি। অন্যথায় বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ পেতে ভোগান্তি হতে পারে। তাছাড়া অনেক কোম্পানি ই-মেইলের মাধ্যমে বার্ষিক সাধারণ সভার নোটিশ ও বার্ষিক প্রতিবেদন বিনিয়োগকারীদের নিকট পাঠায়। তাই বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাবের নিরাপত্তার জন্য সঠিক মোবাইল নাম্বার অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। একইসঙ্গে বিনিয়োগকারীদের ব্যাংক হিসাব এবং ই-মেইল (যদি থাকে) সংযোজন করতে অনুরোধ জানানো হবে বলে জানিয়েছেন বিএসইসি।
এর আগে একই জাতীয় পরিচয়পত্র, মোবাইল নাম্বার এবং ব্যাংক হিসাব ব্যবহার করে খোলা বিভিন্ন বিও হিসাব বন্ধের সময়সীমা দ্বিতীয় দফা বাড়িয়ে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত করেছে বিএসইসি। একই জাতীয় পরিচয়পত্র, মোবাইল নাম্বার এবং ব্যাংক হিসাব ব্যবহার করে খোলা বিভিন্ন বিও হিসাব বন্ধের জন্য গত ২০ জুন এক সার্কুলারের মাধ্যমে এ সমস্যা সমাধানের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। এ সার্কুলারের সময় ২১ জুলাই শেষ হয়েছে। ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের আবেদনের প্রেক্ষিতে এ সময়সীমা প্রথম দফা বাড়িয়ে ২১ অক্টোরর ২০১৯ পর্যন্ত করেছিল কমিশন।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৪০ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged