editorial

যথাযথ দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ স্বতন্ত্র পরিচালকরা

তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোতে কর্পোরেট সুশাসন প্রতিষ্ঠা জরুরি

সময়: বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৩, ২০১৯ ১১:২৫:১২ অপরাহ্ণ


 

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর স্বতন্ত্র পরিচালকরা নিজেদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করছেন না কিংবা পালন করতে পারছেন না। কোম্পানি পরিচালনার ক্ষেত্রে পারিবারিক বলয়ের সংস্কৃতি প্রবল এবং পছন্দসই ব্যক্তিকে স্বতন্ত্র পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেয়ার কারণে বিষয়টির কোনো সুরাহাও হচ্ছে না। ফলে কোম্পানিগুলোতে সংখ্যালঘু শেয়ারধারীদের স্বার্থ উপেক্ষিত হচ্ছে। এমতাবস্থায় সংখ্যালঘু শেয়ারধারীদের স্বার্থ সংরক্ষণে কোম্পানিগুলোতে কর্পোরেট সুশাসন প্রতিষ্ঠার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টরা।
চলমান ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ’ উপলক্ষ্যে গত মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁও-এ আয়োজিত ‘সংখ্যালঘু শেয়ারধারীদের স্বার্থসুরক্ষায় স্বতন্ত্র পরিচালকদের ভূমিকা’ শীর্ষক এক সেমিনারে এসব কথা বলেছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-এর সদস্য হেলাল উদ্দিন নিজামী।

তিনি বলেন, সংখ্যালঘু শেয়ারধারীদের স্বার্থরক্ষার জন্য কোম্পানিতে স্বতন্ত্র পরিচালক রাখার বিধান রয়েছে। তবে স্বতন্ত্র পরিচালকরা তাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করছেন না। কারণ আমাদের দেশে কোম্পানি পরিচালনার ক্ষেত্রে পারিবারিক বলয়ের সংস্কৃতি প্রবল। অন্যদিকে আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগ দেয়া হলেও এক্ষেত্রে কোম্পানিগুলো নিজেদের পছন্দের ব্যক্তিকে বেছে নেয়। ফলে স্বতন্ত্র পরিচালকরা পরিবারতান্ত্রিকতার চাপ থেকে বেরিয়ে আসতে পারছেন না এবং তাদের ক্ষমতা পুরোপুরি আরোপ করতে পারছেন না। তারা কোম্পানির অডিট রিপোর্টসহ বিভিন্ন বিষয়গুলো দেখার কথা থাকলেও সঠিকভাবে দেখতে পারছেন না। বরং অনেক সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে এসব পরিচালকদের।

হেলাল উদ্দিন নিজামী বলেন, অন্যদিকে স্বতন্ত্র পরিচালকরা তাদের এসব সমস্যা নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কখনো কমিশনের সঙ্গে কথা বলেন না। ফলে বিভিন্ন কোম্পানিতে দায়িত্ব পালনরত স্বতন্ত্র পরিচালকরা সংখ্যালঘু শেয়ারধারীদের স্বার্থ সুরক্ষায় কী ধরনের বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন Ñতা কমিশন জানতে পারছে না। এমতাবস্থায় দায়িত্ব পালনে স্বতন্ত্র পরিচালকরদের আরও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। একই সঙ্গে আগামীতে স্বতন্ত্র পরিচালকদের একটি তালিকা প্রণয়ন করা হবে বলেও জানান তিনি।

Share
নিউজটি ৩৪৭ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged