বিএসইসি’র অনলাইন প্ল্যাটফর্ম উদ্বোধন : পাঁচ পদ্ধতিতে প্রতিবেদন জমা দিতে পারবে ইন্টারমিডিয়ারিরা

সময়: বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০১৯ ৬:১৩:১৫ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : অনলাইন রিপোর্ট সাবমিশন প্লাটফর্মের মাধ্যমে মার্চেন্ট ব্যাংকার, প্রাতিষ্ঠানিক ব্রোকার ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলো পাঁচ পদ্ধতিতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) প্রতিবেদন জমা দিতে পারবে।
গতকাল বুধবার বিএসইসি’র প্রধান কার্যালয়ে এ প্ল্যাটফর্মটির উদ্বোধন করেন বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেন। ওই সময় বিএসইসি’র কমিশনারদ্বয়, কর্মকর্তাগণ, ডিএসই, সিএসই, সিডিবিএল’র প্রধান নির্বাহীরা, ডিবিএ, বিএমবিএ, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন এবং ফান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেন বলেন, কমিশন অনলাইন প্ল্যাটফর্মের পরিধি বৃদ্ধি করবে। ভবিষ্যতে কমিশন সব প্রতিবেদনই অনলাইনে গ্রহণ করার চেষ্টা করবে। এর ফলে কমপ্ল্যায়েন্স ইস্যু নিশ্চিত হবে। তাতে পুঁজিবাজারের স্বচ্ছতা আরো বৃদ্ধি পাবে।
অনলাইনে প্রতিবেদন জমা প্রদানের ক্ষেত্রে ৫টি পদ্ধতি অনুসরণের জন্য বলা হয়েছে। সেগুলো হলো- ১. মার্চেন্ট ব্যাংকার, প্রাতিষ্ঠানিক ব্রোকার ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলো তাদের ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ-ইন করে নিজস্ব প্রোফাইল তৈরি করবে। তারপর তারা অনলাইনে প্রতিবেদন জমা দিতে পারবে। ২. অনলাইন প্লাটফর্মে আগের মাসের প্রতিবেদন জমা দানের জন্য প্লাটফর্মটি প্রতি মাসের ১ থেকে ১০ তারিখ রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত খোলা থাকবে। এ সময়ের মধ্যে চাইলে প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের জমা দেয়া প্রতিবেদন সংশোধন করতে পারবে। তবে ১০ তারিখের পর অনলাইন সিস্টেমে প্রতিবেদন জমা কিংবা সংশোধনের সুযোগ থাকবে না। ৩. প্লাটফর্মে প্রতিবেদন জমা দেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই একটি প্রাপ্তি স্বীকারপত্র দেয়া হবে। ৪. এ প্লাটফর্ম ব্যবহারকারীরা এর আগে কমিশনে জমা দেয়া তাদের প্রতিবেদনগুলো ড্যাশবোর্ডে একসঙ্গে এক জায়গায় পাবেন। ৫. ভবিষ্যতে কাস্টডিয়াল সেবা প্রদানকারীদেরও এ প্লাটফর্মের আওতায় আনা হবে এবং সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনগুলো এ প্লাটফর্মের মাধ্যমে জমা দিতে পারবে।
বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, বিএসইসি’র এসআরআই বিভাগে মার্চেন্ট ব্যাংকার, প্রাতিষ্ঠানিক ব্রোকার ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলো তাদের মাসিক প্রতিবেদন নিয়মিতভাবে দাখিল করে আসছে। কোম্পানিগুলোর মাসিক প্রতিবেদন নিয়মিতভাবে দাখিলের জন্য কমিশনের ওয়েবসাইটে একটি স্থায়ী প্লাটফর্ম তৈরির কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। এ অবস্থায় মার্চেন্ট ব্যাংকার, প্রাতিষ্ঠানিক ব্রোকার ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলো জুলাই ২০১৯-এর মাসিক প্রতিবেদন কমিশনের অনলাইন রিপোর্ট সাবমিশন প্লাটফর্মে অথবা কমিশনের ওয়েবসাইটে জমা প্রদান করতে পারবে।
উল্লেখ্য যে, আগস্ট ২০১৯ থেকে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের কোনো হার্টকপি কমিশন গ্রহণ করবে না। কীভাবে এ প্লাটফর্ম ব্যবহার করতে হবে, সে বিষয়ে এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটে (বিআইসিএম) প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৯৫ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged