editorial

যথাসময়ে এজিএম করার অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন : ডিএসই’র পরিচালকের উদ্যোগ অনুসরণযোগ্য

সময়: বৃহস্পতিবার, আগস্ট ২২, ২০১৯ ৫:২১:৩৬ পূর্বাহ্ণ


নির্ধারিত সময়ে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) সম্পন্ন করা দেশের আইনে নিবন্ধিত যে কোনো কোম্পানির দায়িত্ব ও কর্তব্য। একটি কোম্পানির সারা বছরের আয়-ব্যয়সহ যে কোনো ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম কিংবা লেনদেন, সম্পদ ক্রয়-বিক্রয়, কোম্পানির নীতিগত বিষয় কিংবা কাঠামোগত সংস্কার, ভবিষ্যত পরিকল্পনা ইত্যাদি তুলে ধরা হয় এজিএম-এ। কোম্পানির স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার বিষয়টিও এর সঙ্গে জড়িত। পুঁজিবাজার পরিচালনার একটি অন্যতম সংস্থা হিসেবে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলো নিয়মিত এজিএম করে কি না এবং করলেও সেই এজিএম সভার প্রতিবেদন নিয়মিত দাখিল করলো কি নাÑ তা তদারকির দায়িত্ব দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের। তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানি যথাসময়ে এজিএম না করলে ওই কোম্পানি বরাবর কারণ দর্শানো নোটিশ জারি করতে পারে ডিএসই ও সিএসই। এহেন পরিস্থিতিতে যথাসময়ে নিজেদের এজিএম করা নিয়ে বিপাকে পড়েছে খোদ ডিএসই।
জানা যায়, গত বছর যথাসময়ে এজিএম করতে না পারায় চলতি বছরের গত ৩১ জানুয়ারি ওই এজিএমটি করা হয়েছে। এ প্রেক্ষাপটে বিপত্তি ঘটেছে চলতি বছরের এজিএম করা নিয়ে। কারণ কোম্পানি আইন অনুযায়ী, একই ইংরেজি পঞ্জিকা বছরে কোনো কোম্পানি দুইবার এজিএম করতে পারবে না। তবে আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে এটি করা যেতে পারে বলে বিধান রয়েছে। এমতাবস্থায় চলতি বছরের এজিএম যথাসময়ে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আদালতের অনুমতি চেয়ে আবেদন করেছেন ডিএসই’র একজন পরিচালক। আদালত অনুমতি দিলে চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই এ বছরের এজিএম সম্পন্ন করতে পারবে ডিএসই। যথাসময়ে এজিএম করার লক্ষ্যে ডিএসই’র এ ধরনের উদ্যোগ অনুসরণযোগ্য।
প্রসঙ্গত: ১৯৯৪ সালের কোম্পানি আইনের ৮১(১) উপ-ধারায় বলা হয়েছে, ‘প্রত্যেক কোম্পানি উহার অন্যান্য সভা ছাড়াও প্রতি ইংরেজি পঞ্জিকা বছরে ইহার বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠান করবে। এজিএম অনুষ্ঠানের তারিখের ব্যবধান পনের মাসের অধিক হবে না। তবে শর্ত থাকে যে, কোনো কোম্পানি নিয়মিত হওয়ার তারিখ হইতে অনধিক আঠারো মাস সময়ের মধ্যে উহার প্রথম এজিএম সভা অনুষ্ঠান করতে পারবে এবং যদি এরূপ সাধারণ সভা উক্ত সময়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়, তাহা হইলে নিয়মিত হওয়ার বৎসর বা উহার পরবর্তী বৎসরে উক্ত কোম্পানির অন্য কোনো এজিএম সভা অনুষ্ঠান করার প্রয়োজন হইবে না।
একই আইনের ৮১(২) উপধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো কোম্পানি ৮১(১) উপধারার বিধান পালনে ব্যর্থ হইলে, কোম্পানির যে কোনো সদস্যের আবেদনক্রমে, আদালত উক্ত কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা আহ্বান করিতে অথবা আহ্বান করার নির্দেশ দিতে পারবে এবং আদালত উক্ত সভা আহ্বান অনুষ্ঠান ও পরিচালনার জন্য যেরূপ সমীচীন বলিয়া বিবেচনা করবে সেইরূপ অনুবর্তী ও আনুষঙ্গিক আদেশ প্রদান করিতে পারবে।’

Share
নিউজটি ৪২৯ বার পড়া হয়েছে ।