editorial

রাইট শেয়ারে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা

সময়: বুধবার, অক্টোবর ৯, ২০১৯ ১০:৪৩:০০ পূর্বাহ্ণ


পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন সময় রাইট শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে অর্থ সংগ্রহ করে থাকে। পর্যালোচনায় দেখা যায়, রাইট শেয়ার ছাড়ার আগে এসব কোম্পানির শেয়ার দর ঊর্ধ্বমুখী থাকে। কিন্তু রাইট ইস্যুর পর সেসব কোম্পানির শেয়ার দরে বিপরীত চিত্র লক্ষ্য করা যায়। পরবর্তীতে দরপতনের কারণে রাইট শেয়ারহোল্ডাররা পড়েন বিপাকে।
বাজারসংশ্লিষ্টরা বলছেন, যখন একটি কোম্পানি আইপিওর টাকা উত্তোলন করতে আসে তখন তারা তাদের প্রসপেক্টাসে বেশ কিছু বিষয় উল্লেখ করে। এর মধ্যে কোম্পানির ব্যাংক ঋণ পরিশোধ, কারখানা সম্প্রসারণ করবে, উৎপাদন বাড়বে, আয় বেশি হবে এসব বিষয় প্রতিষ্ঠানগুলো প্রচার করতে থাকে। এভাবে বিনিযোগকারীদের নিকট হতে কোম্পানিগুলো কোটি কোটি টাকা নেয়ার পর কোম্পানির আয় আর বাড়ে না। কয়েক বছর কোনোমতে স্টক বা বোনাস লভ্যাংশ দেয়। অর্থাৎ নগদ টাকার পরিবর্তে কাগজ ধরিয়ে দেয়া। একই সঙ্গে কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের শেয়ার বাড়িয়ে নেয়। এভাবে দুয়েক বছর স্টক ডিভিডেন্ড দেয়ার পর ফের কোম্পানি অর্থ সংগ্রহ করতে চায়। তখন প্রতিষ্ঠানগুলো ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ, উৎপাদন বৃদ্ধি করতে নতুন মেশিনারিজ ক্রয় ইত্যাদির জন্য রাইট শেয়ার ছাড়ে। এর মাধ্যমেও বিনিয়োগকারীদের নিকট হতে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় কোম্পানিগুলো। রাইটের অর্থ উত্তোলনের পর কোম্পানির আয় আর বৃদ্ধি পায় না। ধীরে ধীরে আয় কমতে থাকে, শেয়ারদরে পতন হয়। এর মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা।
বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে বিএসইসি এসব কোম্পানির উপর তদারকি জোরদার করা উচিত। এছাড়া যারা বিগত দিনে রাইট ইস্যু করেছে তাদের অর্থ সঠিকভাবে কাজে লাগানো হয়েছে কি না Ñবিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া উচিত বলে মনে করছেন তারা।

Share
নিউজটি ৩৩১ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged