লেনদেন শুরুর দুই দিন সার্কিট ব্রেকার না রাখার দাবি

সময়: বুধবার, অক্টোবর ৩০, ২০১৯ ৯:২৪:১৪ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) শেয়ার ট্রেডিং শুরুর প্রথম দুই দিনে প্রস্তাবিত সার্কিট ব্রেকার না রাখার প্রস্তাব করেছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। গতকাল মঙ্গলবার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের পক্ষে একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) কার্যালয়ে গিয়ে এ সংক্রান্ত একটি দাবিনামা পেশ করেন। দাবিনামা হস্তান্তরকালে বিনিয়োগকারীদের প্রস্তাবটি কমিশন বিবেচনা করে দেখবে তাদের জানানো হয়।
বিনিয়োগকারীদের দাবিনামা সম্বলিত চিঠিতে বলা হয়েছে, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং ডিবিএর কতিপয় পরিচালক বিএসইসি’র কাছে আইপিও শেয়ার ট্রেডিং শুরুর প্রথম দুই দিন ৫০ শতাংশ হারে সার্কিট ব্রেকার দেয়ার প্রস্তাব করেছে। এতে সাধারণ বিনিয়োগকারীরা খুবই বিস্মিত। আমরা মনে করি এই প্রস্তাব আইপিও বাজারের প্রতি বড় ধরণের ষড়যন্ত্র। এ প্রস্তাব বিএসইসি কর্তৃক অনুমোদিত হলে আইপিও শেয়ারের ট্রেড্রিংয়ের মাধ্যমে তার প্রকৃত মূল্য নির্ধারণের ব্যত্যয় ঘটবে এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীরা আইপিও শেয়ারে বিনিয়োগ করে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ভবিষ্যতে ভাল কোম্পানি শেয়ারবজারে আসতে নিরুৎসাহিত হবে।
চিঠিতে বলা হয়, যেখানে কোনো কোম্পানি ডিভিডেন্ড ঘোষণার পরের দিন সার্কিট ব্রেকার উন্মুক্ত থাকে এবং যার মূল্য সাধারণ বিনিয়োগকারীরা নির্ধারিণ করেন। সেখানে আইপিও মূল্য নির্ধারণ কেন সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বঞ্চিত করে সার্কিট ব্রেকার আরোপ করার পাঁয়াতারা করা হচ্ছে।
চিঠিতে আরও বলা হয়, যেখানে বিএসইসি সাধারণ বিনিয়োগকারীদের স্বার্থরক্ষায় সর্বদা সচেষ্ট থাকেন সেখানে শেয়ার ব্যবসার সাথে জড়িত ২৫ লাখ সাধারণ বিনিয়োগকারীদের অধিকার ক্ষুণ্ন করে কিছু অসাধু ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের স্বার্থ হাসিল করার উদ্দেশ্যে এ ধরণের হঠকারী সিদ্ধান্ত নেয়া বিএসইসি’র উচিত হবে না।
দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৪৬৮ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged