সেবা খাতে রফতানি আয় বেড়েছে

সময়: শুক্রবার, অক্টোবর ৪, ২০১৯ ২:০৭:৩৫ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি অর্থবছরের শুরুতে জুলাই মাসে সেবা খাতে রফতানি আয় আগের চেয়ে বেড়েছে। তবে গত জুলাইয়ের এ খাতের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) প্রকাশিত হালনাগাদ পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানা গেছে।
ইপিবি প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, গত জুলাই মাসে রফতানি আয় হয়েছে ৫৩ কোটি ২৬ লাখ ৭০ হাজার ডলার। আগের বছর একই সময়ে এ খাতে আয় হয়েছিল ৫১ কোটি ৪০ লাখ ডলার। সে হিসেবে আগের বছরের একই সময়ে তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথম মাসে সেবা খাতে রফতানি আয় বেড়েছে ৩ দশমিক ৬২ শতাংশ। তবে গত জুলাইয়ের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৪ দশমিক ৮০ শতাংশ আয় কম হয়েছে। এ সময় সেবা খাতে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭০ কোটি ৮৩ লাখ মার্কিন ডলার।

২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১২ মাসে সেবা খাতে রফতানি করে দেশ আয় করে ৬৩৩ কোটি ৮৪ লাখ ৫০ হাজার ডলার। গত অর্থবছরে সেবা রফতানির প্রবৃদ্ধি ভালো ছিল। এর ধারাবাহিকতায় চলতি অর্থবছরে সেবা রফতানির আয়ের লক্ষ্য ৮৫০ কোটি ডলার ঠিক করেছে সরকার। কিন্তু প্রথম মাসেই সেবা খাতে রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না করতে পারায় সংশ্লিষ্টদের ভাবিয়ে তুলেছে।
বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সংগ্রহকৃত পরিসংখ্যান থেকে মোট তিনটি ভাগে সেবাখাতে রফতানি আয়ের সংকলন করা হয়েছে। এ তিনটি ভাগ হলো- গুডস প্রকিউরড ইন পোর্টস বাই ক্যারিয়ারস, গুডস সোল্ড আন্ডার মার্চেন্টিং ও সার্ভিসেস।
রফতানির আয়ের মধ্যে সরাসরি সার্ভিসেস খাত থেকে এসেছে ৫২ কোটি ৬২ লাখ ডলার। বাকিটা দেশের বন্দরগুলোতে পণ্যবাহী জাহাজগুলোর কেনা পণ্য ও সেবা এবং মার্চেন্টিংয়ের অধীনে পণ্য বিক্রির আয়। সেবার অন্য উপখাতগুলোর মধ্যে ‘অন্যান্য ব্যবসায় সেবা’ থেকে এক লাখ ৩০ হাজার ডলার, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি থেকে চার কোটি ৫১ লাখ ডলার, বিভিন্ন ধরনের পরিবহন সেবা থেকে চার কোটি ৮৭ লাখ ডলার, ভ্রমণ সেবা উপখাত থেকে চার কোটি ৪০ লাখ ডলার এবং বীমা ছাড়া আর্থিক সেবা খাত থেকে ৯৫ লাখ ৯০ হাজার ডলার রফতানি আয় হয়েছে।
বাংলাদেশ থেকে রফতানি হওয়া সেবাপণ্যের মধ্যে রয়েছে ম্যানুফ্যাকচারিং সার্ভিসেস অন ফিজিক্যাল ইনপুটস, মেইনটেন্যান্স অ্যান্ড রিপেয়ার, ট্রান্সপোর্টেশন, কন্সট্রাকশন সার্ভিসেস, ইন্স্যুরেন্স সার্ভিসেস, ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, চার্জেস ফর দ্য ইউজ অব ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি, টেলিকমিউনিকেশন সার্ভিসেস, আদার বিজনেস সার্ভিসেস, পার্সোনাল-কালচার-রিক্রিয়েশনাল ও গভর্নমেন্ট গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৬৮ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged