৬ কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ

সময়: মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০১৯ ১:৫৫:৪২ অপরাহ্ণ


পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ছয় কোম্পানির বিভিন্ন প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। কোম্পানিগুলো হলো- তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ব্র্যাক ব্যাংক, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, যমুনা ব্যাংক এবং ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূত্রে আজ এ তথ্য জানা গেছে।

তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স: বীমা খাতের তাকাফুল ইন্স্যুরেন্সের ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ৭১ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২৫ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ২৬ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ১৩ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৬ টাকা ৫ পয়সা।

মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ইন্স্যুরেন্স: বীমা খাতের মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ২০১৯ আর্থিক বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড কমেছে ৪০ কোটি ৩০ লাখ ২০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৪৬ কোটি ৪৩ লাখ ১০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড কমেছিল ৩৫ কোটি ১২ লাখ ৩০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ১ হাজার ৫২৮ কোটি ৩৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছে ২৯ কোটি ৯৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৭১৬ কোটি ৭৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। গত আর্থিক বছরের একই সময়ে কোম্পানির লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ড বেড়েছিল ৪০ কোটি ৩৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা ও মোট লাইফ ইন্স্যুরেন্স ফান্ডের আকার ছিল ১ হাজার ৬০৩ কোটি ৭৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা

ব্রাক ব্যাংক: ব্যাংক খাতের ব্রাক ব্যাংকের ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৫ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ২ টাকা ১৭ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ টাকা ৬ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩০ টাকা ৫৬ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ২৫ টাকা ৩৬ পয়সা।

যমুনা ব্যাংক: ব্যাংক খাতের যমুনা ব্যাংকের ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৭৮ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ টাকা ৫২ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ টাকা ৬ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ৮০ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ২১ টাকা ৭৯ পয়সা।

প্রাইম ইন্স্যুরেন্স: বীমা খাতের প্রাইম ইন্স্যুরেন্সের ২০১৯ আর্থিক বছরের ৬ মাসের (জানুয়ারী-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬৪ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ৬ পয়সা। এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২০ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে লোকসান হয়েছিল ২৯ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৫২ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ১৫ টাকা ৮৩ পয়সা।
ফারইস্ট ফাইন্যান্স: আর্থিক খাতের ফারইস্ট ফাইন্যান্সের ২০১৯ আর্থিক বছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারী-মার্চ) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৯৩ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে লোকসান হয়েছিল ৪ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৪ টাকা ২৯ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বও ২০১৮ পর্যন্ত সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ৭ টাকা ২২ পয়সা।

এদিকে কোম্পানিটির ২০১৯ আর্থিক বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অ-নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী শেয়ারপ্রতি লোকসান (ইপিএস) হয়েছে ৫২ পয়সা। ২০১৮ আর্থিক বছরের একই সময়ে লোকসান হয়েছিল ১ টাকা ৩৯ পয়সা। ২০১৯ আর্থিক বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সমন্বিত সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৩ টাকা ৭৭ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বও ২০১৮ পর্যন্ত সময়ে সম্পদ মূল্য ছিল ৭ টাকা ২২ পয়সা।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/রী

Share
নিউজটি ৩৭০ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged