editorial

১৪ কোম্পানির তালিকাচ্যুতি

শেয়ারহোল্ডারদের স্বার্থকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হবে

সময়: বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭, ২০১৯ ৬:৪৩:১৫ অপরাহ্ণ


বেশ অনেকদিন থেকেই পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৪টি কোম্পানিকে তালিকাচ্যুতির উদ্রোগ নিয়েছে ‘ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ’ (ডিএসই)। বিষয়টি এখন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এবং বিষয়টি নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘বিএসইসি’-এর সঙ্গে একাধিকবার চিঠি চালাচালিও হয়েছে। অতি সম্প্রতি এ-সংক্রান্ত ডিএসই’র সর্বশেষ চিঠির জবাবে চিহ্নিত ১৪টি কোম্পানিকে তালিকাচ্যুতির পূর্বে বিনিয়োগকারীর স্বার্থে প্রয়োজনীয় আইনগুলো আগে পরিপালনের জন্য সংস্থাটিকে নির্দেশ দিয়েছে ‘বিএসইসি’। একই সঙ্গে প্রাসঙ্গিক আইনের আওতায় একটি সংশোধিত প্রস্তাব আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে বিএসইসি বরাবর জমা দিতেও বলা হয়েছে ডিএসই-কে।
তালিকচ্যুতির জন্য চিহ্নিত কোম্পানিগুলো হচ্ছেÑ শ্যামপুর সুগার মিলস, জিলবাংলা সুগার মিলস, বেক্সিমকো সিন্থেটিকস, শাইনপুকুর সিরামিকস, সোনারগাঁও টেক্সটাইল, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল, তুং-হাই নিটিং অ্যান্ড ডাইং, দুলামিয়া কটন, সমতা লেদার কমপ্লেস, জুট স্পিনার্স, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক ইন্ডাস্ট্রিজ, ইমাম বাটন ইন্ডাস্ট্রিজ ও সাভার রিফ্র্যাক্টোরিজ লিমিটেড।
জানা যায়, সাধারণত পুঁজিবাজার থেকে কোনো কোম্পানিকে তালিকাচ্যুত করা হলে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকরা অধিক লাভবান হয়ে থাকেন। অন্যদিকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন কোম্পানির সাধারণ শেয়ারহোল্ডাররা। এ প্রেক্ষিতে ‘ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ’ (ডিএসই) সাধারণ বিনিয়োগকারীর স্বার্থ প্রাধান্য না দিয়ে কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কেন লাভবান করার উদ্যোগ নিয়েছে, সেটা নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‘বিএসইসি’-কে খতিয়ে দেখার দাবি তুলেছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।
জানা যায়, ডিএসই’র চিঠির জবাবে বিএসইসি বলেছে, লিস্টিং আবেদনের শর্ত অনুযায়ী কোম্পানিগুলোতে কোনো ধরনের অসঙ্গতি বা ঘাটতি কিংবা কোনো আইনের লঙ্ঘন হলে সাধারণ বিনিয়োগকারীর স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে তারপর ব্যবস্থা নিতে হবে। কিন্তু ডিএসই ‘সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স ১৯৬৯’-এর ধারা ৯-এর (৪) অনুযায়ী কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে এবং তাদের পরিচালকদের বিরুদ্ধে কোনো প্রকার ব্যবস্থা নেয়নি।

Share
নিউজটি ৩১৯ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged