সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

বাজারের স্থিতিশীলতায় যথাযথ পদক্ষেপ জরুরি

সময়: বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০ ৬:২১:৩০ অপরাহ্ণ


মো. সাজিদ খান : ফের পতনের কবলে পড়েছে শেয়ারবাজার। এ ধারা অব্যহত থাকলে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা সঙ্কট বাড়বে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। তাদের মতে, কিছুদিন আগেও ধারাবাহিক দরপতনের কবলে পড়েছিল বাজার। যে কারণে সূচক ৫ হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে যায়। পাশাপাশি লেনদেন তলানীতে চলে আসে। এরপর বাজার কিছুটা ঘুরে দাঁড়ালে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে কিছুটা আস্থা চলে আসে। গত দুই কার্যদিবস ধরে সূচক ও লেনদেন কমছে। এ ধারা অব্যহত থাকলে আবারও আস্থা সঙ্কটে পরবে বিনিয়োগকারীরা। তাই বাজার যাতে ধারাবাহিক পতনে না পরে এবং বাজারের স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে।
এদিকে, দেশের উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে আজ সূচকের পাশাপাশি কমেছে লেনদেন। একই সঙ্গে কমেছে বাজার মূলধন এবং অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার দর। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আজ লেনদেন কমেছে ৩৩ কোটি ২৮ লাখ ২০ হাজার ৮৭ টাকা ৩০ পয়সা। আর বাজার মূলধন কমেছে ১ হাজার ৭৪৫ কোটি ৯৭ লাখ ৫৬ হাজার ৬৫৬ টাকা ৬৮ পয়সা।
চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন কমেছে ৪ কোটি ১ লাখ ৬৩ হাজার ৪৫২ টাকা। সিএসই’তে বাজার মূলধন কমেছে ২ হাজার ৩ কোটি ৭৬ লাখ ৮১ হাজার ৩০ টাকা ৭০ পয়সা। সংশ্লিষ্ট স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, আজ ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৩.৫০ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪৪৬৫.৮৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ২.০১ পয়েন্ট কমে ১০২৯.৩১ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ৭.০৭ পয়েন্ট কমে ১৫১৯.২২ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ১০৪টি, কমেছে ১৮৩টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৬৯টি কোম্পানির শেয়ারের দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১৫ কোটি ১৮ লাখ ৮৯ হাজার ১১৯টি শেয়ার এক লাখ ২৯ হাজার ৭৫৫বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৪২০ কোটি ৬০ লাখ ৬ হাজার ৩৫৯ টাকা ১০ পয়সা। আজ বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪০ হাজার ৮২৪ কোটি ৯৪ লাখ ১৪ হাজার ৯৭৫ টাকা ৩১ পয়সা।
গতকাল ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স ২৭.৪৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৪৪৭৯.৪০ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ্্ সূচক ৩.৪৮ পয়েন্ট কমে ১০৩১.৩৩ পয়েন্ট এবং ডিএসই৩০ সূচক ৯.৮৬ পয়েন্ট কমে ১৫২৬.৩০ পয়েন্টে দাঁড়ায়। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৫৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ১৩১টি, কমেছে ১৭৭টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৮টি কোম্পানির শেয়ারের দর। এদিন ডিএসই’তে মোট ১৭ কোটি ২৫ লাখ ৬০ হাজার ৮২৩টি শেয়ার এক লাখ ৩৭ হাজার ৭৮২বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৪৫৩ কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার ৪৪৬ টাকা ৪০ পয়সা। আগের কার্যদিবসে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৪২ হাজার ৫৭০ কোটি ৯১ লাখ ৭১ হাজার ৬৩১ টাকা ৯৯ পয়সা।
ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৭২টি, কমেছে ১৩৫টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৪৮টির শেয়ার দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৭টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৪টি, কমেছে ২৩টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ১০টি শেয়ার দর। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৪টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ৩টিএবং কমেছে ১টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৮টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৫টি, কমেছে ২২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১১টির শেয়ার দর। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ৪টি, কমেছে ১৫টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৮টির দর।
গতকাল ক্যাটাগরিভিত্তিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ডিএসই’তে ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ৯৭টি, কমেছে ১৩০টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩০টির শেয়ার দর। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৭টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৩টি, কমেছে ২৮টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৬টি শেয়ার দর। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৪টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২টি, কমেছে ১টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১টির। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৮টি কোম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৯টি, কমেছে ১৮টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১১টির শেয়ার দর। এছাড়া, ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে বেড়েছে ২২টি, কমেছে ২টি এবং অপরিবর্তিত ছিল ১৩টির দর।
আজ ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭ কোম্পানির মোট ১০ কোটি ৪১ লাখ ৭৭ হাজার ৪০৬টি শেয়ার এক লাখ ২ হাজার ৬০৫বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৩১৪ কোটি ৫৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৭ কোম্পানির ১ কোটি ৯৫ লাখ ৬১ হাজার ৬৭৯টি শেয়ার ১৮ হাজার ৫৬৪বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৪২ কোটি ৩১ লাখ ৪৬ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৪ কোম্পানির ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৫৫টি শেয়ার ৫ হাজার ৫৯৮ বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ২০ কোটি ৮১ লাখ ৫৭ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৮ কোম্পানির ৪২লাখ ৫ হাজার ৪৩২টি শেয়ার ২ হাজার ৯৭২ বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৩ কোটি ২৯ লাখ ২৩ হাজার টাকা।
গতকাল ‘এ’ ক্যাটাগরির ২৫৭ কোম্পানির মোট ১৩ কোটি ৬ লাখ ৭৬ হাজার ৪১৩টি শেয়ার এক লাখ ৭ হাজার ৬১৮বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৪১২ কোটি ৭৬ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ৪৭ কোম্পানির ২ কোটি ৯২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৯টি শেয়ার ২২ হাজার ৪২৪বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৫৫ কোটি ৯৬ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। ‘এন’ ক্যাটাগরির ৪ কোম্পানির ৫৮ লাখ ৬৯৮টি শেয়ার ৪ হাজার ৫৩৪ বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ১৬ কোটি ৯২ লাখ ৮৭ হাজার টাকা। ‘জেড’ ক্যাটাগরির ৪৮ কোম্পানির ৪৯ লাখ ৫৪ হাজার ৪৬৩টি শেয়ার ৩ হাজার ৫৬ বার হাতবদল হয়, যাদের মোট মূল্য ৩ কোটি ৯৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা।
অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) আজ সিএসই’র সার্বিক সূচক ৬৩.০৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৩৫৭৯.৫৪ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৩৭.৭৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৮২৩১.৭৮ পয়েন্টে। আজ মোট ২৩৫টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ৬৫টির, কমেছে ১৩৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৩৫ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৬৫ লাখ ৩২ হাজার ৯৬৫টি শেয়ার ও ইউনিট ৬ হাজার ৮৮৯বার হাতবদল হয়েছে, যাদের মোট মূল্য ছিল ১৪ কোটি ১৮ লাখ ৭৩ হাজার ১০১ টাকা ৪০ পয়সা। আজ সিএসই’র বাজারমূলধন ছিল ২ লাখ ৭০ হাজার ৩৫ কোটি ৭৫ লাখ ৪৮ হাজার ৩৮৫ টাকা ১০ পয়সা।
গতকাল চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক ৬৯.০৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ১৩৬৪২.৬০ পয়েন্টে। সিএসইএক্স সূচক ৪২.৮৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়ায় ৮২৬৯.৫৩ পয়েন্টে। আজ মোট ২৪৭টি কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে বেড়েছে ৮৮টির, কমেছে ১৩২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৭ কোম্পানির শেয়ার দর। আর দিন শেষে ৮৯ লাখ ৮২ হাজার ৯৫৯টি শেয়ার ও ইউনিট ৮ হাজার ৩৮৩বার হাতবদল হয়েছে, যাদের মোট মূল্য ছিল ১৮ কোটি ২০ লাখ ৩৬ হাজার ৫৫৩ টাকা ৪০ পয়সা। আগের কার্যদিবসে সিএসই’র বাজারমূলধন ছিল ২ লাখ ৭২ হাজার ৩৯ কোটি ৫২ লাখ ২৯ হাজার ৪১৫ টাকা ৮০ পয়সা।

দৈনিক শেয়ারবাজার প্রতিদিন/এসএ/খান

Share
নিউজটি ৩৮৭ বার পড়া হয়েছে ।
Tagged